হোম / ট্যাগ আর্কাইভ

ট্যাগ আর্কাইভ

দরুদ ও সালাম

আল্লামা মনজূর নূমানী রহঃ দরুদ এবং সালামও এক প্রকার দুআ। আল্লাহ পাকের নিকট নবীজীর জন্য আমরা এ দুআ করে থাকি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। বস্তুত আমাদের উপর আল্লাহ তাআলার পরে নবীজীর অনুগ্রহ সবচে বড়। তিনি হাজারো বিপদ-মুসিবত অতিক্রম করে আমাদের পর্যন্ত দ্বীন পৌঁছিয়েছেন। যদি তিনি সীমাহীন ত্যাগ ও কোরবানী স্বীকার …

আরো পড়ুন

তওবা ও ইস্তিগফার

আল্লামা মনজূর নূমানী রহঃ আল্লাহ তাআলা নবী পাঠিয়েছেন এবং কিতাব দান করেছেন যেন মানুষ যেন ভালোমন্দ বুঝতে পারে। সওয়াবের কাজ থেকে গোনাহের কাজকে পৃথক করে নিতে পারে। সৎ পথে চলে আল্লাহ পাকের সন্তুষ্টি এবং অন্যায় পথ ত্যাগ করে পরকালের মুক্তি অর্জন করেতে পারে। তাই যারা নবী-রাসুলগণ এবং আল্লাহর কিতাবসমুহের উপর …

আরো পড়ুন

দুআ ও পার্থনা

আল্লামা মনজূর নূমানী রহঃ এটা সর্বজনস্বীকৃত সত্য যে, এই পৃথিবীর সবকিছু আল্লাহ পাকের হুকুমে চলছে। ছোটবড় সব কিছু তার কুদরতি কব্জায় রয়েছে। সুতরাং সকল সমস্যায় তাকে ডাকা এবং সকল প্রয়োজনে তার নিকট দুআ করা একান্ত স্বভাবসিদ্ধ বিষয়। এই জন্য সকল ধর্মে প্রার্থনার বিধান রয়েছে। সবাই আপন আপন প্রয়োজনে সৃষ্টিকর্তার নিকট …

আরো পড়ুন

আল্লাহ পাকের সন্তুষ্টি লাভের সহজ তরিকা

আল্লামা মনজূর নূমানী রহঃ আল্লাহ পাকের সন্তুষ্টি এবং পরকালের মুক্তির জন্য বক্ষমাণ পুস্তুকের আলোচিত বিশটি পাঠ –ইনশাআল্লাহ- যথেষ্ট। এখানে কয়েক ছত্রে পুরো কিতাবের সারাংশ তুলে ধরা হচ্ছে। যাতে মনে রাখা এবং আমল করা সহজ হয়। ১। ইসলামের প্রথম শিক্ষা এবং আল্লাহ পাকের সন্তুষ্টি ও জান্নাত লাভের প্রথম শর্ত হলো ‘লা …

আরো পড়ুন

যিকিরের হাকীকত ও ফযীলত

আল্লামা মনজূর নূমানী রহঃ ইসলামী শিক্ষার মূলকথা হলো, আল্লাহর বান্দা আল্লাহর হুকুম-মতো জীবন যাপন করবে এবং সকল কাজে আল্লাহ পাকের আনুগত্য করবে। সর্বাবস্থায় বান্দার দিলে যখন আল্লাহ পাকের কথা স্মরণ থাকবে, আল্লাহ পাকের ভয় ও মুহাব্বত যখন তার অন্তরে স্থান করে নেবে, কেবল তখন সকল কাজে আল্লাহ তাআলার হুকুমের সামনে …

আরো পড়ুন

ব্যাংকে রাখা ডিপিএসের টাকায় হজ্জ করার হুকুম কী?

প্রশ্ন আমি ইসলামী ব্যাংকে একটি ডিপিএস করেছি এবং সেই টাকায় আমি হজ্জ করতে পারব কি না? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم বাংলাদেশী ইসলামী ব্যাংকগুলোর ব্যবসায়িক কার্যক্রম পুরোপুরি শরীয়ত সম্মত নয় বলেই আমাদের পর্যবেক্ষণ। তাই ডিপিএস থেকে প্রাপ্ত মুনাফা দিয়ে হজ্ব করা জায়েজ হবে না। কারণ তা সুদী টাকার হুকুমে। তবে ডিপিএস বাবদ …

আরো পড়ুন

মৃত ব্যক্তির নামে হজ্জ করা যাবে?

প্রশ্ন কেউ যদি মৃতের হজ্জ আদায় করতে চায় তাহলে তার করনীয় কি? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم আপনি তার পক্ষ থেকে বদলী হজ্জ আদায় করতে পারেন। عَنِ ابْنِ عَبَّاسٍ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا، أَنَّ امْرَأَةً مِنْ جُهَيْنَةَ، جَاءَتْ إِلَى النَّبِيِّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، فَقَالَتْ: إِنَّ أُمِّي نَذَرَتْ أَنْ تَحُجَّ فَلَمْ تَحُجَّ …

আরো পড়ুন

হজ্বের সময় নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যোহর ও আসর নামায কেন কসর করেছিলেন?

প্রশ্ন নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বিদায় হজ্বে যোহর ও আছর কি কসর করেছিলেন? কসর করে থাকলে সেটা কি দূরত্ব অর্থাৎ মুসাফির হিসেবে না হজ্বের ব্যতিক্রম আমল হিসেবে? উত্তর  بسم الله الرحمن الرحيم রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কসর করেছিলেন। হজ্বের ব্যতিক্রম আমল নয়, বরং মুসাফির হিসেবে কসর করেছিলেন। عَنْ أَنَسِ بْنِ …

আরো পড়ুন

মিনার তাঁবুতে যোহর ও আসরের নামায এক আজানে দুই ইকামতে আদায় করা যাবে কি?

প্রশ্ন মিনার তাঁবুতে নামায আদায় করলে ৯ই জিলহজ্ব যোহর ও আছর এক আজানে দুই ইকামতে আদায় করলে কোন সমস্যা আছে কি না? ইমাম আবু হানীফা রহঃ ছাড়া অন্য সকল ইমাম এবং ইমাম আবু হানীফা রহঃ এর বিখ্যাত বিখ্যাত দুই ছাত্র ইমাম আবু ইউসুফ ও অন্য আরেকজন এ মতটাকাকেই নাকি প্রাধান্য …

আরো পড়ুন

মক্কায় মুকীম ব্যক্তি মিনা আরাফা মুজদালিফায় ও মুকীম থাকবে না মুসাফির?

প্রশ্ন ৮ই জিলহজ্বের পূর্বে মক্কায় মুকীম হিসেবে অবস্থান করে মিনা আরাফা মুজদালিফায় মুসাফির হিসেবে বিবেচনা করে আমল করা যাবে কিনা? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم কোন ব্যক্তি যদি প্রথমেই মক্কায় পনের দিন অবস্থান করে ফেলে, তাহলে সে মুকীম হয়ে যায়। এরপর মিনা, মুযদালিফা এবং আরাফায়ও মুকীম হিসেবেই বাকী থাকে। তাই …

আরো পড়ুন

বদলী হজ্বে “দমে শোকর” কার নামে করতে হবে?

প্রশ্ন Assalamualaikum. Tamattu hajje dom shokor o nisab wealth holay qurbanir answer ta aj porlam. But In sha Allah i m going to perform badli hajj of my deceased father and intend to do it in Tamattu way. So what will be name for dom e shukur in this case? …

আরো পড়ুন

আরাফা ও মুযদালিফায় দুই নামায একত্রে পড়া হয় কেন?

প্রশ্ন আসসালামু য়ালাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ। হযরত আমরা জানি যে, হাজ্জের সময় আরাফার ময়দানে  নামাজকে জাময়ুত তাক্বদীম ও মুজদালিফায় জাময়ুত তাখির  করতে হয়,কিন্তু নির্ধারিত ওয়াক্তেতো নামাজ আদায় করা ফরজ। যেহেতু হুজুর (স): করেছেন তাই তাতে  প্রশ্নহীন আনুগত্য করতে হবে এতে কোনো সন্দেহের অবকাশ নেই,আমার জিজ্ঞাসা হলো এর পেছনে কি কোনো কারণ …

আরো পড়ুন