হোম / প্রবন্ধ নিবন্ধ (page 5)

প্রবন্ধ নিবন্ধ

তালাক বিষয়ে সমাজে প্রচলিত কতিপয় ভুলত্রুটি

মাওলানা আব্দুল মালেক দামাত বারাকাতুহু এ সংখ্যায় শুধু এ বিষয়ে আলোচনা করাই মুনাসিব মনে হল। একটি কথা তো বারবার লেখা হয়েছে, ওলামা-মাশায়েখও আলোচনা করে থাকেন যে, অতীব প্রয়োজন (যা শরীয়তে ওজর বলে গণ্য) ছাড়া স্বামীর জন্য যেমন তালাক দেওয়া জায়েয নয় তেমনি স্ত্রীর জন্যও তালাক চাওয়া দুরস্ত নয়। তালাকের পথ …

আরো পড়ুন

জোড় শব্দে ইকামত দেওয়ার দলীলসমূহ

আল্লামা আব্দুল মতীন দামাত বারাকাতুহু ১. হযরত আব্দুর রাহমান ইবনে আবী লায়লা র. বলেন: حَدَّثَنَا أَصْحَابُ مُحَمَّد صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ ؛ أَنَّ عَبْدَ اللهِ بْنَ زَيْدٍ الأَنْصَارِيَّ جَاءَ إِلَى النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ , فَقَالَ : يَا رَسُولَ اللهِ ، رَأَيْتُ فِي الْمَنَامِ كَأَنَّ رَجُلاً قَامَ وَعَلَيْهِ بُرْدَانِ …

আরো পড়ুন

মুযাফফর বিন মুহসিনের ছালাত বইয়ে উদ্ধৃত হাত বাঁধা সংক্রান্ত আলোচনার পর্যালোচনা

আল্লামা আব্দুল মতীন দামাত বারাকাতুহু আগের লেখাটি পড়ে নিনঃ বুকের উপর হাত বাঁধার হাদীস : একটু পর্যালোচনা এ মাসআলায় আমাদের লা-মাযহাবী বন্ধু মুযাফফর বিন মুহসিন তার লেখা ‘জাল হাদীছের কবলে রাসূলুল্লাহ (ছা:)এর ছালাত’ নামক বইটিতে যেসব দলিলপ্রমাণ পেশ করেছেন, পাঠকদের জ্ঞাতার্থে সেগুলোর সংক্ষিপ্ত পর্যালোচনা তুলে ধরা হলো। ১ বুকের উপর …

আরো পড়ুন

বুকের উপর হাত বাঁধার হাদীস : একটু পর্যালোচনা

আল্লামা আব্দুল মতীন দামাত বারাকাতুহু পূর্বের লেখাটি পড়ে নিন নামাযে কব্জির উপর হাত বেঁধে নাভির নীচে রাখা সুন্নত যেসব হাদীস দ্বারা বুকের উপর হাত বাঁধার প্রমাণ পেশ করা হয়, তার একটিও সহীহ নয়। নিম্নে পর্যালোচনাসহ হাদীসগুলো তুলে ধরা হলো। ১ হযরত ওয়াইল রা. বলেছেন, صليت مع رسول الله صلى الله …

আরো পড়ুন

নামাযে কব্জির উপর হাত বেঁধে নাভির নীচে রাখা সুন্নত

আল্লামা আব্দুল মতীন দামাত বারাকাতুহু নামাযে বাম কব্জির উপর ডান হাত রেখে দু’আঙ্গুল দ্বারা চেপে ধরা সুন্নত। একাধিক সহীহ হাদীস দ্বারা এ আমল প্রমাণিত । চার মাযহাবের সকল ইমাম ও আলেম এটাকেই সুন্নত পদ্ধতি আখ্যা দিয়েছেন। পক্ষান্তরে কনুই পর্যন্ত হাত রাখার পক্ষে কোন হাদীস নেই। পূর্বসূরিগণের কারো আমলও নেই। এমনিভাবে …

আরো পড়ুন

সকল ফকীহরই নির্ভরতা ছিল সহীহ হাদীসের উপর

আল্লামা আব্দুল মতীন দামাত বারাকাতুহু পড়ে নিন- ইমাম আবু হানীফা ছিলেন যুগের সবচেয়ে বড় মুজতাহিদ ও ফকীহ প্রসিদ্ধ চার ইমামসহ সকল মুজতাহিদ ফকীহই নির্ভর করেছেন সহীহ হাদীসের উপর। কারণ তাদের সকলের ঐকান্তিক চেষ্টা ছিল রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের বাণী ও কর্ম সঠিকভাবে ধরতে পারা। ফলে এ ক্ষেত্রে সহীহ হাদীসের …

আরো পড়ুন

ইমাম আবু হানীফা ছিলেন যুগের সবচেয়ে বড় মুজতাহিদ ও ফকীহ

আল্লামা আব্দুল মতীন দামাত বারাকাতুহু পড়ে নিন- হাদীসের হাফেজগণও ফকীহগণের মুখাপেক্ষী ছিলেন : এই এগার নম্বর ঘটনা ও নয় নম্বরে উল্লেখিত ইবনে মাঈনের বক্তব্য থেকেও বোঝা যায়, ইমাম আবু হানীফা ছিলেন তাঁর যুগের সবচেয়ে বড় মুজতাহিদ ও ফকীহ। ইমাম শাফেয়ীর একথা তো খুবই প্রসিদ্ধ যে, الناس في الفقه عيال على …

আরো পড়ুন

হাদীসের হাফেজগণও ফকীহগণের মুখাপেক্ষী ছিলেন :

আল্লামা আব্দুল মতীন দামাত বারাকাতুহু পড়ে নিন- মুহাদ্দিসগণও ফকীহগণের কদর বুঝতেন শুধু হাদীস জানা ফকীহগণের প্রয়োজন ও মুখাপেক্ষিতা মেটাতে ও দূর করতে পারে না। এই কারণে বড় বড় হাফেজে হাদীসগণ শুধু ফকীহগণের কদরই করেন নি, তাদের কাছ থেকে ফিকহের ইলম অর্জন করেছেন, কিংবা তাদের রচিত বইপুস্তক গভীর ভাবে অধ্যয়ন করেছেন। কিংবা …

আরো পড়ুন

মুহাদ্দিসগণও ফকীহগণের কদর বুঝতেন

আল্লামা আব্দুল মতীন দামাত বারাকাতুহু পড়ে নিন- ফিক্বহের গুরুত্ব এবং ফক্বীহদের বৈশিষ্ট্যাবলী আ’মাশ রহ.এর উপরোক্ত উক্তিটি সোনার হরফে লিখে রাখার মতো। এতে ফকীহগণের মর্যাদার প্রকৃত চিত্র ফুঠে উঠেছে। তার মতো অনেক সেরা সেরা মুহাদ্দিস ফকীহগণের যথাযোগ্য কদর করতেন। নিম্নে তাদের কয়েকজনের বক্তব্য তুলে ধরা হলো : ১. ইমাম মালেক বলেছেন, ما …

আরো পড়ুন

ফিক্বহের গুরুত্ব এবং ফক্বীহদের বৈশিষ্ট্যাবলী

আল্লামা আব্দুল মতীন দামাত বারাকাতুহু কিছু লোকের বাড়াবাড়ির ফলে আমাদের মহান পূর্বসূরিগণের একটি জামাতের গুরুত্ব দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে। এ জামাতটি হলো ফকীহ ও মুজতাহিদগণের জামাত। সাহাবায়ে কেরামের যুগ থেকে হিজরী দ্বাদশ শতাব্দী পর্যন্ত এ জামাতের গুরুত্ব ছিল প্রায় সর্বজন স্বীকৃত। বলাবাহুল্য, আল্লাহ তায়ালা কুরআন ও সুন্নাহ সংরক্ষণের যে জিম্মাদারি …

আরো পড়ুন

বৃদ্ধ বাবা মাকে ভাগ বাটোয়ারার পণ্য না বানাই

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী কয়েকটি গল্প বলবো। বাস্তব গল্প। যাপিত জীবনের গল্প। ১ পাশেই থাকতো আমার। সবে বাড়ি থেকে ফিরেছে। ঘর্মাক্ত শরীর। কালো চেহারাটা আরো কালো দেখাচ্ছে। মন খারাপ করে বসে আছে যুবকটা। জিজ্ঞাসা করলামঃ কী হল ভাই? মন খারাপ? দীর্ঘশ্বাস নিয়ে জবাব দিলঃ “ভাই বাড়ি থেকে এলাম। আব্বা ও আম্মার …

আরো পড়ুন

নফল হজ্ব কখন কিভাবে করবেন?

শাইখুল ইসলাম মুফতী তাক্বী উসমানী দামাত বারাকাতুহু শাবান থেকে যিলহজ পর্যন্ত ইবাদতের এক ধারাবাহিক ব্যবস্থা রেখেছেন আল্লাহ তাআলা। এ সময়ের প্রতিটি মাসই বিশেষ বিশেষ ইবাদত ও আহকামের জন্য নির্ধারিত। রমযানুল মুবারকে আল্লাহ তাআলা রোযা ফরয করেছেন। তারাবীহর নামাযকে সুন্নত হিসেবে দিয়েছেন। এই রমযান শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই হজ্বের মাস শুরু …

আরো পড়ুন