হোম / নফল ইবাদত

নফল ইবাদত

ঈসালে সওয়াবের শরীয়তসিদ্ধ কতিপয় পদ্ধতি

মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুর রহমান যে কোনো নেক কাজের ঈসালে সওয়াব করা জায়েয। তবে সকল পদ্ধতির গুরুত্ব ও মর্যাদা এক পর্যায়ের নয়। গত সংখ্যায় দুটি পদ্ধতি (দুআ ও সদকা) আলোচিত হয়েছে। এখানে অন্যান্য পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করা হল। এক. হজ্ব হজ্ব ইসলামের এক প্রোজ্জ্বল শিআর এবং অত্যন্ত গভীর ও হৃদয়গ্রাহী ইবাদত। …

আরো পড়ুন

সেহরী ও রোযার প্রচলিত দুআর কোন ভিত্তি আছে কী?

প্রশ্ন মুফতী সাহেবের নিকট আমার প্রশ্ন হল, আমাদের দেশে রমজান উপলক্ষ্যে যেসব ক্যালেন্ডার বের হয়, সেসব ক্যালেন্ডারে সেহরী ও ইফতারের দুআ লেখা হয়, এসব দুআর ব্যাপারে জানতে  চাই। এর কী কোন ভিত্তি আছে? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم ইফতারীর দুআর ভিত্তি রয়েছে। হাদীস দ্বারা প্রমাণিত। ইফতারের সময় দুআ পড়বে, “আল্লাহুম্মা …

আরো পড়ুন

সেহরী না খেয়ে লাগাতার রোযা রাখার হুকুম কী?

প্রশ্ন একটানা না ভেঙ্গে ৩ দিন বা ৭ দিন রোজা রাখা যাবে কি ? যদি আমি রোজা রাখা শুরু করি রবিবার থেকে আর ইফতার করি মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ; শারিয়াহর দৃষ্টিকোণ থেকে এটার বৈধতা আছে কি ? বিভিন্ন আওলিয়ার জীবনীতে এমন রোজার উল্লেখ পাওয়া যায়। এরকম রোজা রাখা কি হারাম নাকি …

আরো পড়ুন

আল্লাহ ও তাঁর রাসুল এবং দ্বীনের প্রতি মুহাব্বত

আল্লামা মনজূর নূমানী রহঃ প্রিয় ভাই! যেমনিভাবে ইসলাম আমাদেরকে নামায-রোযার তালিম দেয়, সদাচার ও ন্যায় বিচারের শিক্ষা দেয়, তেমনি এ শিক্ষাও দেয় যে, দুনিয়ার সবকিছু থেকে এমনকি নিজের জান-মাল, ইজ্জত-সম্মান, পিতা-মাতা, বিবি-বাচ্চা সবকিছু থেকে আল্লাহ ও তাঁর রাসুল এবং দ্বীনকে আমরা বেশি মুহাব্বত করবো। অর্থাৎ যদি এমন কঠিন মুহূর্ত আসে …

আরো পড়ুন

দরুদ ও সালাম

আল্লামা মনজূর নূমানী রহঃ দরুদ এবং সালামও এক প্রকার দুআ। আল্লাহ পাকের নিকট নবীজীর জন্য আমরা এ দুআ করে থাকি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম। বস্তুত আমাদের উপর আল্লাহ তাআলার পরে নবীজীর অনুগ্রহ সবচে বড়। তিনি হাজারো বিপদ-মুসিবত অতিক্রম করে আমাদের পর্যন্ত দ্বীন পৌঁছিয়েছেন। যদি তিনি সীমাহীন ত্যাগ ও কোরবানী স্বীকার …

আরো পড়ুন

সবার জন্য পীরের কাছে বাইয়াত হওয়া কী জরুরী?

প্রশ্ন From: মোঃ তৌহিদুল  ইসলাম বিষয়ঃ বায়াত প্রশ্নঃ আমি একজন তিন চিল্লার সাথী। আমার জন্য কি কোন এক জন পীর বা আলেমের কাছে বায়াত হওয়া জরুরি? না হলে এতে কোন লোকসান আছে কি? আর হলে কোন লাভ আছে কি? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم হক্কানী পীর বা আলেমের কাছে বাইয়াত …

আরো পড়ুন

কুরআন পড়ে ঈসালে সওয়াবের কোন প্রমাণ হাদীস নেই?

প্রশ্ন কুরআন পড়ে মৃত ব্যক্তির জন্য ঈসালে সওয়াবের কথা কী হাদীসে আছে? আজকাল কিছু লা মাযহাবী আলেমরা বলছেন যে, এর কোন প্রমাণ নাকি হাদীসের কোথাও নেই। দয়া করে জানালে কৃতজ্ঞ হবো। উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم কুরআন পড়ে ঈসালে সওয়াবের কথা হাদীসে বিদ্যমান রয়েছে। এটা অস্বিকার করার কোন সুযোগ নেই। …

আরো পড়ুন

যিকিরের হাকীকত ও ফযীলত

আল্লামা মনজূর নূমানী রহঃ ইসলামী শিক্ষার মূলকথা হলো, আল্লাহর বান্দা আল্লাহর হুকুম-মতো জীবন যাপন করবে এবং সকল কাজে আল্লাহ পাকের আনুগত্য করবে। সর্বাবস্থায় বান্দার দিলে যখন আল্লাহ পাকের কথা স্মরণ থাকবে, আল্লাহ পাকের ভয় ও মুহাব্বত যখন তার অন্তরে স্থান করে নেবে, কেবল তখন সকল কাজে আল্লাহ তাআলার হুকুমের সামনে …

আরো পড়ুন

ইস্তেখারার ফলাফল শুধু স্বপ্নেই জানা যায়?

প্রশ্ন মুহতারাম, আমার এক বোন বিয়ের জন্য ইস্তিখারা করছে। তো তিনি প্রথম দিন এই স্বপ্ন দেখে যে, ছেলেকে আপুর খালা বলতেছেনঃ আসো তুমি জামাই। কিন্তু ছেলেটা তার ঘাড় নিচু করে লজ্জার ভঙ্গিতে মাথা ঘুরিয়ে না না বলছে। আসতেই চাচ্ছে না। এমন বুঝচ্ছে। মুখে না, তবে মাথা ঘুরিয়ে। এ থেকে আল্লাহর …

আরো পড়ুন

যোহরের ফরজের আগের সুন্নত কত রাকাআত? দুই না চার?

প্রশ্ন From: মুহাম্মদ শরীফুল ইসলাম বিষয়ঃ নামাজের মাসায়েল প্রশ্নঃ আমরা এতদিন জেনে এসেছি যে, যোহরের ফরজ নামাজের পূর্বে চার রাকাত সুন্নতে মুয়াক্কাদা পড়তে হয়ে; কিন্তু আমাদের এলাকার কিছু ওলামায়ে কেরাম যোহরের ফরজের পূর্বে 2 রাকাত পরেন। আসলে শরীয়তে এর ভিত্তি কি? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم জোহরের ফরজের আগে চার …

আরো পড়ুন

ইবাদত কিভাবে করা উত্তম? প্রকাশ্যে না লুকিয়ে?

প্রশ্ন প্রকাশ্যে এবাদতের পাশাপাশি নিরবে এবং গোপনে এবাদতের গুরত্ব ইসলামে কতটা রয়েছে অথবা প্রকাশ্যে এবাদত এবং গোপনে এবাদতের মধ্যে কার গুরত্ব ইসলামে সব থেকে বেশি দয়া করে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করবেন. সুলতানুল আরেফিন পশ্চিমবঙ্গ ,ভারত। উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم ইবাদতের ক্ষেত্রে প্রধানতম বিষয় হল, আল্লাহর সন্তুষ্টির নিমিত্তে ইবাদত করা। …

আরো পড়ুন

সর্দির কারণে বারবার হাঁচি আসলে বারবারই কী ‘আলহামদুলিল্লাহ’ বলতে হবে?

প্রশ্ন হাঁচি হলে Alhamdulillah বলতে হয়.যদি সদি’র হাঁচি হয়  বার বার কি Alhamdulillah বলতেই হবে ? উত্তর بسم الله الرحمن الرحيم যতবারই হাঁচি আসে, ততবারই আলহামদুলিল্লাহ বলা মুস্তাহাব। তবে জরুরী নয়। عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُ، عَنِ النَّبِيِّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: ” إِنَّ اللَّهَ يُحِبُّ العُطَاسَ، وَيَكْرَهُ التَّثَاؤُبَ، فَإِذَا عَطَسَ …

আরো পড়ুন