হোম / ইতিহাস ও ঐতিহ্য / কে ছিলেন মারিয়া কিবতিয়া রাঃ?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

কে ছিলেন মারিয়া কিবতিয়া রাঃ?

প্রশ্ন

প্রশ্নকর্তা-মঞ্জুরুল হাসান, ইন্ডিয়া।

আসসালামু আলাইকুম।

আমার প্রশ্ন হচ্ছে, মারিয়া কিবতিয়া কে ছিলেন? নবী পাকের সাথে কিসের সম্পর্ক?

ইউকিপিডিয়াতে লেখা আছে, নবী পাকের সাথে বিয়ে হয়নি।

যদি হয়ে থাকে, তাহলে নবী পাকের ওয়াইফদের তালিকায় তার নাম নেই কেন?

আর ইউকিপিডিয়াতে যে ভুল লেখা হয়েছে তার ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না কেন?

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

ইউকিপিডিয়া একটি মুক্ত বিশ্বকোষ। এখানে রেজিষ্টার করে যে ইচ্ছে সেই লিখতে পারে। এটা কোন নির্ভরযোগ্য সূত্র নয়। সুতরাং এর কোন গ্রহণযোগ্যতা নেই।

প্রথমেই একথা বুঝতে হবে যে, ইসলামপূর্ব জমানা থেকে গোলাম বাঁদী প্রথা  চালু ছিল।

ইসলাম আসার পর অনেকগুলো উপকারী দিকের কারণে এ প্রথাকে একেবারে বিলুপ্ত করা হয়নি।

যেমন যুদ্ধ বিধ্বস্ত এলাকায় যেখানে পুরুষরা মারা যায়, সেখানকার নারীদের আশ্রয় ও ভরণপোষণের মানসে এ প্রথাটির যৌক্তিকতা রয়েছে।

বাদীর ক্ষেত্রে বিধান ছিল, যার অধীনে থাকবে তিনি তাকে স্ত্রীর মত আচরণ করতে পারবেন।

এটি প্রাগৈতিহাসিক যুগ থেকেই প্রচলিত একটি নীতি ছিল। ইসলাম এসে এ অংশকে রহিত করেনি।

যদিও কতিপয় সহজতা ইসলাম বিধিবদ্ধ করে। যেমন, গোলাম বাদী আজাদের ফযীলত বর্ণনা করা হয়। কসমসহ অন্যান্য অনেক বিষয়ে কাফফারা স্বরূপ গোলাম বা বাদীকে আযাদকে করার বিধান করা হয়। তাছাড়া বাদীদের বিয়ে করার সুযোগও রাখা হয়। এছাড়া বাদীর গর্ভে সন্তান হলে সেই বাদী আযাদ হয়ে যায় মর্মে বিধান আসে।

এভাবে এ প্রথাকে বিলুপ্ত করার প্রয়াস চালানো হয়।

উপরোক্ত বিষয়গুলোকে সামনে রেখে মারিয়া কিবতিয়া রাঃ এর বিষয়টি বুঝতে হবে।

মারিয়া কিবতিয়া রাঃ রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর বিবাহ করা স্ত্রী ছিলেন না। তিনি ছিলেন নবীজীর বাদী। যাকে মিশরের বাদশা উপহার স্বরূপ প্রেরণ করেন।

তিনি খৃষ্টান ছিলেন। তারপর মুসলমান হন। তার থেকে নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের একজন ছেলে সন্তান ইবরাহীম জন্মগ্রহণ করেন।

তিনি হযরত উমর রাঃ এর শাসনামনে ইন্তেকাল করেন। [যাদুল মা’আদ-১/১৪১, তবক্বাতে ইবনে সাদ-১/১৩৪-১৩৫]

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

স্ত্রী স্বামীকে বলল ‘তুমি তিন তালাক’ এভাবে বললে তালাক হয়?

প্রশ্ন From: তারেক হুসাঈন বিষয়ঃ স্ত্রী স্বামীকে তিন তালাক বলা প্রশ্নঃ আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ। …