হোম / খিলাফত/ইসলামী রাষ্ট্রনীতি / মাওলানার স্ত্রীর জন্য মেম্বার পদে নির্বাচন করা জায়েজ?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

মাওলানার স্ত্রীর জন্য মেম্বার পদে নির্বাচন করা জায়েজ?

প্রশ্ন

From: মো: শাকিল আহমেদ
বিষয়ঃ মহিলারা ইউপি নিবাচনে অংশ নিতে পারবে?

প্রশ্নঃ
আসালামু আলাইকুম।

আমাদের গ্রামের মাওলানা বশির তার বিবি কে মহিলা মেম্বার পদে নিবাচনে অংশ নেয় এবং হুজুরের বউ নির্বাচনে গেলে দ্বীন কায়েম করবে ঘোষণা দেয় এবারে আপনি কি বলেন?

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

মাওলানা সাহেবের কাজটি শরীয়ত সম্মত নয়। শরীয়ত গর্হিত পদ্ধতি অনুসরণ করে তিনি কিভাবে দ্বীন কায়েম করবেন? তিনি নিজেইতো দ্বীনের বিধান লঙ্ঘণ করছেন।

নারীদের জন্য নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে নেতা বা নেত্রী হওয়া ইসলাম সম্মত নয়।

প্রয়োজনে যোগ্য হলে মাওলানা সাহেব নিজে নির্বাচনে দাড়াতে পারেন। কিন্তু তার স্ত্রীকে দাঁড় করানো শরীয়ত সম্মত হবে না।

عن أبي بكرة قال : عصمني الله بشيء سمعته من رسول الله صلى الله عليه و سلم لما هلك كسرى قال من استخلفوا ؟ قالوا ابنته فقال النبي صلى الله عليه و سلم لن يفلح قوم ولو أمرهم امرأة (سنن الترمذى-كتاب الفتن، باب من  باب ما جاء في لانهي عن سب الرياح، رقم الحديث-2262)

হযরত আবু বাকরা রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন-যখন কিসরা পদানত হল তখন তাকে বলতে শুনেছি-কে তার পরবর্তী খলীফা? বলা হল-তার মেয়ে। তখন রাসূল সাঃ ইরশাদ করেন-সে জাতি সফলকাম হয় না, যাদের প্রধান হল নারী। {সুনানে তিরমিযী, হাদীস নং-২২৬২, সহীহ বুখারী, হাদীস নং-৬৬৮৬, সুনানে নাসায়ী কুবরা, হাদীস নং-৫৯৩৭, সুনানে বায়হাকী কুবরা, হাদীস নং-৪৯০৭}

عن أبي هريرة قال : قال رسول الله صلى الله عليه و سلم وإذا كان أمراؤكم شراركم وأغنياؤكم بخلاءكم وأموركم إلى نسائكم فبطن الأرض خير لكم من ظهرها (سنن الترمذى-كتاب الفتن عن رسول الله صلى الله عليه و سلم، باب من باب ما جاء في لانهي عن سب الرياح، رقم الحديث-2266)

হযরত আবু হুরায়রা রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেন-যখন তোমাদের নেতারা তোমাদের মাঝের বদলোক হয়। আর তোমাদের ধনীরা হয় কৃপণ, আর তোমাদের কর্মকর্তা হয় মহিলা। তাহলে জমিনের পেট তার পিঠের তুলনায় তোমাদের জন্য উত্তম। [অর্থাৎ মৃত্যু তোমাদের জন্য উত্তম জমিনের উপরে বেঁচে থাকার চেয়ে।] {সুনানে তিরমিযী, হাদীস নং-২২৬৬}

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

স্ত্রী স্বামীকে বলল ‘তুমি তিন তালাক’ এভাবে বললে তালাক হয়?

প্রশ্ন From: তারেক হুসাঈন বিষয়ঃ স্ত্রী স্বামীকে তিন তালাক বলা প্রশ্নঃ আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ। …