হোম / অপরাধ ও গোনাহ / গোনাহে লিপ্ত মা বোনের ক্ষেত্রে করণীয় কী?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

গোনাহে লিপ্ত মা বোনের ক্ষেত্রে করণীয় কী?

প্রশ্ন

From: মোঃ শাহাদাত হোসেন
বিষয়ঃ হেদায়ত

প্রশ্নঃ
আমি শাহাদাত , বয়স ২১.

আমার বাবা বিদেশে থাকে , বাসায় মা – বোন কেউ নামাজ পড়েনা। নামাজ পড়তে বললেও পড়ে না , আমি রমজান মাস ছাড়া টানা ৫ ওয়াক্ত নামাজ পড়তে কখনো দেখিনি।
আম্মুকে বললে , বলে চেষ্টা করি কিন্তু পারিনা। অর্থাৎ আল্লাহর হেদায়েত পায় না বলে নামাজ পড়তে পারছেনা।  সারাদিন Star Jalsa., Z bangla নিয়ে পড়ে থাকে। মরতে হবে সব বুঝে কিন্তুু ধর্মের বিধি বিধান মানে না। প্রশ্ন হচ্ছে , এখন আমি কি করতে পারি? এভাবে আমার পরিবার জাহান্নামের দিকে যাচ্ছে!  তাছাড়া জনতা ব্যাংকের সঞ্চয়ী হিসাবের টাকা ইসলামী ব্যাংকে নিতে বলি , তাও করছেনা।
আমি আলহামদুলিল্লাহ্ চেষ্টা নিজে দ্বীনের উপর চলতে।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

আপনি দ্বীনের উপর অটল থাকুন। পিতা মাতা ও বোনের জন্য দুআ করুন। সেই সাথে তাদেরকে বুঝানোর কাজটি চালিয়ে যান। ইনশাআল্লাহ পরিবর্তন হয়ে যাবে।

চেষ্টা করুন দাওয়াত ও তাবলীগের মাস্তুরাত জামাতের সাথে জোড়ে দিতে। তালীম ও দাওয়াতের মেহনতে আশা করি পরিবর্তন হতে পারে।

হাকীমুল উম্মত আশরাফ আলী থানবী রহঃ, ইমাম গাজালী রহঃ এবং হযরত হাকীম আখতার সাহেব রহঃ এর লিখিত বিভিন্ন বই বাংলা হয়েছে। এসব কিনে পড়তে দিন। বিশেষ করে ফাযায়েলে আমাল এবং ফাযায়েলে সাদাকাতের দ্বিতীয় খণ্ডটি পড়তে দিন। সেই সাথে ইদ্রিস কান্ধলবী রহঃ এর সীরাতে মুস্তাফা সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বইটি যা ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে বাংলা হয়েছে। এটিও পড়তে দিন।

বইগুলো পড়লে জীবনে পরিবর্তন আশা করা যায়।

তাদের দ্বীনের উপর আমল না করার করণে তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করা যাবে না। তাদের হক আদায়ে যত্নবান হতে হবে। হিকমতের সাথে বুঝানো চালিয়ে যান। হেদায়াত আল্লাহর হাতে।

وَإِن جَاهَدَاكَ عَلَىٰ أَن تُشْرِكَ بِي مَا لَيْسَ لَكَ بِهِ عِلْمٌ فَلَا تُطِعْهُمَا ۖ وَصَاحِبْهُمَا فِي الدُّنْيَا مَعْرُوفًا ۖ وَاتَّبِعْ سَبِيلَ مَنْ أَنَابَ إِلَيَّ ۚ ثُمَّ إِلَيَّ مَرْجِعُكُمْ فَأُنَبِّئُكُم بِمَا كُنتُمْ تَعْمَلُونَ [٣١:١٥]

পিতা-মাতা যদি তোমাকে আমার সাথে এমন বিষয়কে শরীক স্থির করতে পীড়াপীড়ি করে, যার জ্ঞান তোমার নেই; তবে তুমি তাদের কথা মানবে না এবং দুনিয়াতে তাদের সাথে সদ্ভাবে সহঅবস্থান করবে। যে আমার অভিমুখী হয়, তার পথ অনুসরণ করবে। অতঃপর তোমাদের প্রত্যাবর্তন আমারই দিকে এবং তোমরা যা করতে, আমি সে বিষয়ে তোমাদেরকে জ্ঞাত করবো। [সূরা লুকমান-১৫]

عَنْ أَسْمَاءَ بِنْتِ أَبِي بَكْرٍ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا، قَالَتْ: قَدِمَتْ عَلَيَّ أُمِّي وَهِيَ مُشْرِكَةٌ فِي عَهْدِ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، فَاسْتَفْتَيْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، قُلْتُ: وَهِيَ رَاغِبَةٌ، أَفَأَصِلُ أُمِّي؟ قَالَ: «نَعَمْ صِلِي أُمَّكِ

আসমা বিনতে আবূ বাকর (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম)-এর যুগে আমার আম্মা মুশরিক অবস্থায় আমার নিকট এলেন। আমি রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম)-এর নিকট ফাতওয়া চেয়ে বললাম, তিনি আমার প্রতি খুবই আকৃষ্ট, এমতাবস্থায় আমি কি তার সঙ্গে সদাচরণ করব? তিনি বললেন, হ্যাঁ, তুমি তোমার মায়ের সঙ্গে সদাচরণ কর। [সহীহ বুখারী, হাদীস নং-২৬২০]

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা-জামিয়া ফারুকিয়া দক্ষিণ বনশ্রী ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

ময়লার ড্রেনের পাশের রাস্তায় বৃষ্টির পানির ছিটা লাগলে হুকুম কী?

প্রশ্ন মুফতী সাহেবের কাছে আমার প্রশ্ন হল, আমাদের ঢাকার রাস্তাগুলোর পাশেই ময়লার ড্রেন থাকে। বৃষ্টি …