হোম / তালাক/ডিভোর্স / আগে এক তালাক দেবার পর স্বামী বলল “দুই তালাক” এর দ্বারা কয় তালাক পতিত হয়?

আগে এক তালাক দেবার পর স্বামী বলল “দুই তালাক” এর দ্বারা কয় তালাক পতিত হয়?

প্রশ্ন

হুজুর আসসালামু আলাইকুম।

বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় এক ছেলে আমাকে পছন্দ করত। আমি বাসায় না জানিয়ে তাকে বিয়ে করি। বিয়ে তে আমার কোন অভিভাবক ছিল না। বিয়ের মোহরানাও তখন ধার্য হয় নি। বিয়ের রেজিস্ট্রেশন ও হয় নি। তারপর ৫বছর কেটে গেছে। আমাদের তখন সহবাস হয় নি কিন্তু সে আমাকে স্পর্শ করেছে। আমরা আলাদা থাকতাম, বিয়ে গোপন ছিল। শুধু ৩ জন সাক্ষী জানত। আমাদের ভিতর ঝগড়া লেগেই থাকত। বনিবনা হত না। ঝগড়ার দরুন সে আমাকে ৩ বারে (৩টি ভিন্ন ভিন্ন সময়ে) ৩ তালাক দিয়ে দেয়। পরে সে আমাকে বলে  সে একজন মুফতির কাছে শুনেছে সহবাস না হলে নাকি ১ তালাকেই বিয়ে ভেঙে যায়। তাই পরের ২ টা তালাক গন্য হয় নি কারণ তখন নাকি আমরা স্বামী স্ত্রী ছিলাম না।  আর এমন করবে না বলে ও চাকরি পাওয়ার পর পারিবারিক ভাবে আমাদের আবার বিয়ে হয়।  কিন্তু সে  কিছুদিন আগে আবার আমাকে বলে  “দুই তালাক “। সে ২ নং তালাক এর নিয়্যাতে বলেছে” দুই তালাক” কারণ এর আগে ১ তালাক হয়েছিল। এখন আমার প্রশ্ন তার বলা “দুই তালাক” কথা দ্বারা  কি ২ নং তালাক হবে নাকি ২ ও ৩ নং তালাক হবে? আসলে আমাদের ভিতর এখন কয় তালাক গন্য হয়েছে? হুজুর আমি আপনাকে কল ও দিয়েছিলাম। হুজুর দয়া করে উত্তর টা দিয়েন। এই ব্যাপারে খুব বিপদে আছি।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

বিয়ের পর সহবাস না হলে ভিন্ন ভিন্ন সময়ে তিন তালাক দিলে এক তালাক পতিত হয়ে স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে যায়। এ অবস্থায় আবার বিয়ে করার সুযোগ বাকি থাকে।

আগে এক তালাক হবার পর দ্বিতীয়বার বিয়ে করার পর স্বামীর কথা “দুই তালাক” দ্বারা বাহ্যিকভাবে দুই তালাক পতিত হয়ে গেছে।

আগের এক তালাক ও এখনকার দুই তালাক মিলে তিন তালাক হয়ে গেছে। তাই স্বামীর জন্য স্ত্রী হারাম হয়ে গেছে।

তবে যদি স্বামী “দুই তালাক” বলে “দ্বিতীয় তালাক” উদ্দেশ্য নিয়ে থাকে,তাহলে দুই তালাক পতিত হয়েছে। বাকি এটি স্বামীর নিয়তের উপর নির্ভরশীল।

বাহ্যিক শব্দ “দুই তালাক” যদিও আলাদা দুই তালাককেই বুঝাচ্ছে। কিন্তু নিয়ত ভিন্ন হলে দ্বিতীয় তালাক উদ্দেশ্য হবে।

সেই হিসেবে স্বামী যদি দৃঢ়তার সাথে বলে যে, দুই তালাক নয়, বরং দ্বিতীয় তালাক দেবার নিয়তেই সে বলেছে “দুই তালাক” তাহলে আপনাদের বিবাহ এখনো অক্ষুন্ন আছে। [ফাতাওয়া দারুল উলুম দেওবন্দ-১০-১৬০-১৬১]

বাকি স্বামী আর এক তালাক দেবার মালিক রয়ে গেল। তাই ভবিষ্যতে সাবধান থাকতে হবে।

إذَا طَلَّقَ الرَّجُلُ امْرَأَتَهُ ثَلَاثًا قَبْلَ الدُّخُولِ بِهَا وَقَعْنَ عَلَيْهَا فَإِنْ فَرَّقَ الطَّلَاقَ بَانَتْ بِالْأُولَى وَلَمْ تَقَعْ الثَّانِيَةُ وَالثَّالِثَةُ وَذَلِكَ مِثْلُ أَنْ يَقُولَ أَنْتِ طَالِقٌ طَالِقٌ طَالِقٌ (الفتاوى الهندية-1/373، هداية-2/371، رد المحتار-4/512)

قَالَ لِزَوْجَتِهِ غَيْرِ الْمَدْخُولِ بِهَا أَنْتِ طَالِقٌ ثَلَاثًا وَقَعْنَ (وَإِنْ فَرَّقَ) بِوَصْفٍ أَوْ خَبَرٍ أَوْ جُمَلٍ بِعَطْفٍ أَوْ غَيْرِهِ (بَانَتْ بِالْأُولَى) لَا إلَى عِدَّةٍ (وَ) لِذَا (لَمْ تَقَعْ الثَّانِيَةُ) بِخِلَافِ الْمَوْطُوءَةِ حَيْثُ يَقَعُ الْكُلُّ وَعَمَّ التَّفْرِيقُ، (الد المختار مع رد المحتار، كتاب الطلاق غير المدخول بهاب-4/509)

(وَإِنْ نَوَى وَاحِدَةً وَثَنَيْنَ فَثَلَاثٌ) لَوْ مَدْخُولًا بِهَا. (وَفِي غَيْرِ الْمَوْطُوءَةِ وَاحِدَةٌ كَ) قَوْلِهِ لَهَا (وَاحِدَةٍ وَثِنْتَيْنِ) لِأَنَّهُ لَمْ يَبْقَ لِلثِّنْتَيْنِ مَحَلٌّ (الدر المختار مع رد المحتار، كتاب الطلق، باب الصريح-4/477)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

         

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

সেহরী খেয়ে নিয়ত না করে ঘুমিয়ে পড়লে রোযা হবে কি?

প্রশ্ন আমি গতকাল রাতে ২ টার দিকে খাওয়ার পর ঘুমিয়ে পড়ি, নিয়ত করতে পারিনি। কিন্তু …