হোম / ইসলাহী/আত্মশুদ্ধি / সান্ধ্যকালীন মাসনূন জিকির আদায়ের উত্তম সময় কোনটি?

সান্ধ্যকালীন মাসনূন জিকির আদায়ের উত্তম সময় কোনটি?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ।

আল্লাহ আপনাকে সুস্থ রাখুন।হুজুর;সকাল সন্ধ্যার জিকিরের ব্যাপারে অনেক হাদিস আছে। সকাল বেলা বলতে ফযর নামাযের পর থেকে সুর্য ওঠা পর্যন্ত বুঝি। কিন্তু সন্ধ্যা বলতে বুঝতে সমস্যা হচ্ছে।এই সময়টা আসরের পর নাকি মাগরিবের পর? কুরান এবং হাদিস এ আসরের পর বোঝাচ্ছে। যেমন Surah Qaf, Verse 39:

فَاصْبِرْ عَلَىٰ مَا يَقُولُونَ وَسَبِّحْ بِحَمْدِ رَبِّكَ قَبْلَ طُلُوعِ الشَّمْسِ وَقَبْلَ الْغُرُوبِ

অতএব, তারা যা কিছু বলে,তজ্জন্যে আপনি ছবর করুন এবং, সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের পূর্বে আপনার পালনকর্তার সপ্রশংস পবিত্রতা ঘোষণা করুন।

আবার একটি হাদীসে আছে “ফজরের পর আল্লাহর যিকির চারজন দাস মুক্তির চেয়ে বেশি প্রিয় এবং আসরের পর আল্লাহর যিকির আটজন দাস মুক্তির চেয়ে উত্তম। আহমদ। দয়া করে সহিহটা জানাবেন।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

সন্ধ্যা বলতে সূর্যাস্তের পূর্ব মুহুর্তকেই বুঝানো হয়। সূর্যাস্তের পর থেকে রাত শুরু হয়ে যায়।

তাই সন্ধ্যার জিকিরের সুন্নাহ সম্মত সময় হল সূর্যাস্তের পূর্ব মুহুর্তে।

আল্লাহ ওয়ালা বুযুর্গানে দ্বীনের অনেকেই এ সময়ে সান্ধ্যকালীন জিকির করতে তাগিদ দিয়েছেন। যদি কেউ না পারে, তাহলে তার ক্ষেত্রে বাদ মাগরিব বা এর পরে তা আদায় করতে উৎসাহ প্রদান করেছেন।

কুরআনের বিভিন্ন আয়াত ও হাদীস থেকে এটাই প্রমাণিত হয়।

فَاصْبِرْ عَلَىٰ مَا يَقُولُونَ وَسَبِّحْ بِحَمْدِ رَبِّكَ قَبْلَ طُلُوعِ الشَّمْسِ وَقَبْلَ غُرُوبِهَا ۖ وَمِنْ آنَاءِ اللَّيْلِ فَسَبِّحْ وَأَطْرَافَ النَّهَارِ لَعَلَّكَ تَرْضَىٰ [٢٠:١٣٠]

সুতরাং এরা যা বলে সে বিষয়ে ধৈর্য্য ধারণ করুন এবং আপনার পালনকর্তার প্রশংসা পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষনা করুন সূর্যোদয়ের পূর্বে, সূর্যাস্তের পূর্বে এবং পবিত্রতা ও মহিমা ঘোষনা করুন রাত্রির কিছু অংশ ও দিবাভাগে, সম্ভবতঃ তাতে আপনি সন্তুষ্ট হবেন। [সূরা ত্বহা-১৩০]

وَاذْكُر رَّبَّكَ فِي نَفْسِكَ تَضَرُّعًا وَخِيفَةً وَدُونَ الْجَهْرِ مِنَ الْقَوْلِ بِالْغُدُوِّ وَالْآصَالِ وَلَا تَكُن مِّنَ الْغَافِلِينَ [٧:٢٠٥]

আর জিকির করতে থাক স্বীয় পালনকর্তাকে আপন মনে ক্রন্দনরত ও ভীত-সন্ত্রস্ত অবস্থায় এবং এমন স্বরে যা চিৎকার করে বলা অপেক্ষা কম; সকালে ও সন্ধ্যায়। আর বে-খবর থেকো না। [সূরা আরাফ-২০৫]

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com 

         

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

নামায পড়তে না পারলে কী রোযা রাখা যাবে না?

প্রশ্ন বিসমিহিতা আলা একজন মেয়ে হিন্দু হতে মুসলিম হয়েছে তার কারনে বাসা হতে সমস্যা হচ্ছে …