হোম / তালাক/ডিভোর্স / স্ত্রীকে “আমি তোকে আর রাখবো না” বলার দ্বারা কি তালাক পতিত হয়?

স্ত্রীকে “আমি তোকে আর রাখবো না” বলার দ্বারা কি তালাক পতিত হয়?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম,

আশা করি আল্লাহর রহমতে ভাল আছেন।

হুজুর,
আমার ভাগ্নে বিদেশে থাকে। তার স্ত্রী তার (স্ত্রীর) বাবার বাড়ি অবস্থান করছিল। যে কোন বিষয়কে কেন্দ্র করে বিদেশ থেকেই সে তার স্ত্রীকে বলে “আগামী কাল আমার বাড়ি চলে যাবি। আমার ভাত যদি খেতে চাস তাহলে আগামী কালই চলে যাবি। যদি না যাস তবে তোকে আর নিব না (রাখব না)। তুই আর আমার বাড়ি যাবি না। তোর কাছে আমার যে জিনিস পত্র আছে সব সহ ডিভোর্স পেপার পাঠিয়ে দিবি, তোর জিনিসও সব পেয়ে যাবি”। এমনকি অনেকগুলো মেসেজ দিয়েও সতর্ক করে। তখন তার স্ত্রী শর্ত দেয় যে “তোমার পক্ষ থেকে কেউ নিতে আসলে তবেই আমি যাব। অন্যথায় যাব না”। এদিকে আমার ভাগ্নে তার খালাতো ভাইকে পাঠানোর জন্য অনুমতি নেওয়ার সময় তার খালা জিজ্ঞাসা করে “সে (স্ত্রী) যদি না আসে”? তখন সে বলে “আজকের মধ্যে যদি না আসে তাহলে ওর রাখবো না ৮০ হাজার টাকা (কাবিনের টাকা) দিয়ে ডিভোর্স (তালাক) দিয়ে দিব”। তখন আমার অন্য ভাগ্নেকে পাঠানো হয় ঐ স্ত্রীকে নিয়ে আসার জন্য। কিন্তু সে আসে না। সকলে তাকে বুঝাতে অক্ষম হয় যে আজকের দিনটা নানা শশুর বাড়িতে (আমাদের বাড়ি) গিয়ে ঠান্ডা মাথায় আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে। শেষ পর্যন্ত সে (স্ত্রী) আসেই নি। এখনো তার বাবার বাড়িতে অবস্থান করছে।

এমতাবস্থায় শরীয়তের দৃষ্টিতে কি সিদ্ধান্ত আসে? উক্ত স্ত্রীকে নিয়ে সংসার করা বৈধ হবে? নাকি তালাক হয়ে যাবে? তালাক হওয়ার জন্য “তালাক” শব্দ উল্লেখ করা কি জরুরী? এ ব্যাপারে আপনার নিকট ফতোয়ার আবেদন করছি।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

যদি কথোপকথন তা’ই হয়, যা প্রশ্নে বর্ণিত হয়েছে। তাহলে এর মাধ্যমে কোন তালাক পতিত হয়নি। বরং তালাক দেবার ভয় বা প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে। আর তালাকের ভয় দেখালে বা প্রতিশ্রুতি দিলেই তালাক পতিত হয় না।

তালাক প্রকাশক সমাজে প্রচলিত যেকোন শব্দ বললেই তালাক পতিত হয়ে যায়।

তাই এ বিষয়ে সাবধান থাকা উচিত। সংসারের ছোটখাট সমস্যার কারণে তালাকের মত প্রান্তিক সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত নয়। বিশেষ করে স্বামী বিদেশ থাকা অবস্থায় স্ত্রীকে শ্বশুরবাড়ীতে জোর করে রাখার অন্যায় আবদার না করাই বাঞ্ছনীয়।

صيغة المضارع لا يقع بها الطلاق الا اذا غلب فى الحال كما صرح به الكمال بن الهمام (الفتاوى الحامدية، كتاب الطلاق-38، رشيدة(

وفى الدر المختار، بخلاف قوله طلقى نفسك فقالت أنا طالق، أو أنا اطلق نفسى، لم يقع لأنه وعد، (رد المحتار، كتاب الطلاق، باب تفويض الطلاق-3/319

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

মৃত স্ত্রীকে স্বামী বা মৃত স্বামীকে স্ত্রী গোসল দিতে পারবে কি?

প্রশ্ন স্বামী মারা গেলে স্ত্রী তাকে গোসল দিতে পারবে? স্ত্রী মারা গেলে স্ত্রী তার স্বামীকে …