হোম / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / কি পরিমাণ সম্পদ থাকলে কুরবানী আবশ্যক হয়? আকীকা না করলে কুরবানী করা যায় না?

কি পরিমাণ সম্পদ থাকলে কুরবানী আবশ্যক হয়? আকীকা না করলে কুরবানী করা যায় না?

প্রশ্ন

১.কি পরিমাণ সম্পদ (টাকা) থাকলে কুরবানি ওয়াজিব??

২.আর আমার আকিকা করা হয় নি।

তাহলে কি আমি কুরবানি আমার নামে দিতে পারব অথবা বাবা মার নামে??

৩.আকিকা না করে কুরবানি দেওয়া যাবে কি না?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

কুরবানীর দিনসমূহ তথা ১০,১১ এবং ১২ই জিলহজ্জ্ব এ তিনদিনের নিত্য প্রয়োজনীয় খরচ অতিরিক্ত যে ব্যক্তির কাছে সাড়ে বায়ান্ন তোলা রূপা বা এর সমমূল্য বা সাড়ে সাত তোলা স্বর্ণ বা এর সমমূল্য পরিমাণ সম্পদ থাকবে, তার উপর কুরবানী করা আবশ্যক।

আকীকা না করে থাকলেও কুরবানী করাতে কোন সমস্যা নেই। আকীকা করা ওয়াজিব নয় বরং মুস্তাহাব। কিন্তু কুরবানী করা ওয়াজিব। আকীকার করা না করার সাথে কুরবানী করার কোন ন্যুনতম সম্পর্ক নেই।

নিজের উপর ওয়াজিব কুরবানী আদায় করার পর বাবা-মা সহ যে কারো নামেই একাধিক কুরবানী করা যায়।

وإنما تجب على حر مسلم مقيم موسر عن نفسه، لأنه أصل فى الوجوب عليه (مجمع الأنهر-2/516، هداية-4/443-444)

وإن شرط الوجوب منها وهو ما يتعلق به وجوب صدقة الفطر (الفتاوى الهندية-5/292)

 (وَأَمَّا) (شَرَائِطُ الْوُجُوبِ) : مِنْهَا الْيَسَارُ وَهُوَ مَا يَتَعَلَّقُ بِهِ وُجُوبِ صَدَقَةِ الْفِطْرِ دُونَ مَا يَتَعَلَّقُ بِهِ وُجُوبُ الزَّكَاةِ،………. وَالْمُوسِرُ فِي ظَاهِرِ الرِّوَايَةِ مَنْ لَهُ مِائَتَا دِرْهَمٍ أَوْ عِشْرُونَ دِينَارًا أَوْ شَيْءٌ يَبْلُغُ ذَلِكَ سِوَى مَسْكَنِهِ وَمَتَاعِ مَسْكَنِهِ وَمَرْكُوبِهِ وَخَادِمِهِ فِي حَاجَتِهِ الَّتِي لَا يَسْتَغْنِي عَنْهَا، فَأَمَّا مَا عَدَا ذَلِكَ مِنْ سَائِمَةٍ أَوْ رَقِيقٍ أَوْ خَيْلٍ أَوْ مَتَاعٍ لِتِجَارَةِ أَوْ غَيْرِهَا فَإِنَّهُ يُعْتَدُّ بِهِ مِنْ يَسَارِهِ،(الفتاوى الهندية، كتاب الأضحية، فصل شرائط الوجوب-5/292، رد المحتار، كتاب الاضحية-9/452-453، مجمع الانهر-4/167

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

তারাবীহ সালাতের চার রাকাত পর বসে প্রচলিত “সুবহানা জিলমুলুকি ওয়ালমালাকুতু” যে দুআ পড়া হয় এর কোন ভিত্তি আছে কি?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারকাতুহ। ১) তারাবীহ নামাজের চার রাকাত পর পর কোন দোয়া পড়া …