হোম / কুরবানী/জবেহ/আকীকা / স্ত্রীর আলাদাভাবে নেসাব পরিমাণ সম্পদ থাকলে তার উপর স্বতন্ত্র কুরবানী করা ওয়াজিব হবে কি?

স্ত্রীর আলাদাভাবে নেসাব পরিমাণ সম্পদ থাকলে তার উপর স্বতন্ত্র কুরবানী করা ওয়াজিব হবে কি?

প্রশ্ন

আস্‌সালামু আলাইকুম।

আমি কোরবানী দিব ইনশাআল্লাহ। আমার স্ত্রীর নিজস্ব আয় রয়েছে (ব্যাংক ডিপিএসসহ) এবং তা নেসাব পরিমাণ। এমতাবস্থায়, তার প্রতিও কি আলাদাভাবে কোরবানী ওয়াজিব? না কি সংসারের কর্তা হিসেবে শুধু আমি দিলেই চলবে?

রফিউজ্জামান

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

মৌলিক ইবাদতগুলো প্রতি ব্যক্তির জন্যই আলাদা। একজনের ইবাদত করার দ্বারা অন্যজন এর দায়িত্ব মুক্ত হয় না। নামায, রোযা, হজ্ব, যাকাত, কুরবানী, প্রতিটি ইবাদতই আলাদা। যা ব্যক্তির উপর স্বতন্ত্রভাবে আবশ্যক হয়। একজনের আদায়ের দ্বারা অন্যজন দায়িত্বমুক্ত হয় না।

তাই পরিবারের যতজন সদস্য রয়েছেন। তাদের প্রতিজনের আলাদাভাবে নেসাব পরিমাণ সম্পদ থাকলে, প্রতিজনের উপরই কুরবানী করা আবশ্যক হবে। একজনের কুরবানী দ্বারা অন্যের কুরবানী আদায় হবে না।

وإنما تجب على حر مسلم مقيم موسر عن نفسه، لأنه أصل فى الوجوب عليه (مجمع الأنهر-2/516، هداية-4/443-444

أَلَّا تَزِرُ وَازِرَةٌ وِزْرَ أُخْرَىٰ [٥٣:٣٨

কিতাবে এই আছে যে,কোন ব্যক্তি কারও বোঝা নিজে বহন করবে না। [সূরা নাজম-৩৮}

আরো বিস্তারিত জানতে হলে পড়ুন-

এক কুরবানী পরিবারের সবার পক্ষ থেকে হয়ে যায় মর্মে সহীহ মুসলিমে হাদীস আছে?

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

         

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

আহলে হাদীস মতাদর্শীরা বাইতুল্লাহ থেকে চার জামাত দূর করেছে একদিন বিশ রাকাত তারাবীও দূর করবে?

প্রশ্ন নামঃ হুমায়ুন কবীর দেশঃ বাংলাদেশ আসসালামু আলাইকুম। আমার কয়েকটি প্রশ্ন আছে। আমাদের দেশে আহলে …