হোম / অজু/গোসল/পবিত্রতা/হায়েজ/নেফাস / নাপাক অবস্থায় পশু কুরবানী করলে হুকুম কী?

নাপাক অবস্থায় পশু কুরবানী করলে হুকুম কী?

প্রশ্ন

From: md rakibul islam riaz
বিষয়ঃ নাপাক অবস্থায় কুরবানি করার বিধান

আসসালামু আলাইকুম।

জনাব আমি কিছু দিন আগে এক দাওয়াত বাড়িতে যাই।সেখানে আমাকে একটি ছাগল কুরবানী করতে বলে। কিন্তু আমি তা করতে চাইনি। কারণ আমি তখন নাপাক ছিলাম। মানে রাতে বীর্যপাত হয়েছিল। কিন্তু চাপের মুখে পরে করতে হয়। এখন এর বিধান কি? সেই ছাগলের গোস্ত খাওয়া কি ঠিক হলো? আর আমার এতে পাপ হলে এখন করনীয় কি? দয়া করে জলদি জানান? আমার জানা খুব দরকার। আল্লাহ আপনাকে কবুল করুন। আমিন।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

জবাই করার সময় যদি আল্লাহু আকবার বলে থাকেন, তাহলে এ কুরবানী হয়ে গেছে। পবিত্র থাকা শর্ত নয়। আল্লাহু আকবার বলা শর্ত। পাক ও নাপাক উভয় অবস্থায়ই পশু জবাই করা যায়। [ফাতাওয়া মাহমূদিয়া-২৬/১৮২]

فائدة: وتباح ذبيحة الجنب فيسمى، ويذبح تجوز له التسمية، ولا يمنع منها، لأنه إنما يمنع من القرآن لا من الذكر ولهذا تشرع له التسمية عند اغتساله، وليست الجنابة أعظم من الكفر، والكافر يسعى ويذبح، وممن رخص فى ذبح الجنب الحسن والحكم والليث والشافعى وإسحاق وأبو ثور وأصحاب الرأى، قال ابن المنذر: ولا أعلم أحدا منع من ذلك، وتباح ذبيحة الحائض، لأنها فى معنى الجنب ا ه من المغنى، قلت: وكذالك النفساء ظ (اعلاء السنن، كتاب الصيد والذبائح، باب ما جاء فى الجلالة، فوائد شتى تتعلق بأبواب الذبائح-17/200)

وكذا سكب الأنهر على مجمع الأنهر-4/154، حاشية الطحطاوى على الدر-4/152

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

তালাকের আবেদনের প্রেক্ষিতে “আরেকবার বললে যা বলছো তা’ই হবে” বলার দ্বারা তালাক হয় কি?

প্রশ্ন বরাবর, মুহতামিম সাহেব, আসসালামু আলাইকুম। সম্মনিত মুফতি সাহেব। যদি স্বামী স্ত্রী ঝগড়ার এক পর্যায়ে …