হোম / ইলমী পরিভাষা/শব্দার্থ / গোশতকে মাংস বলার বিধান কী?

গোশতকে মাংস বলার বিধান কী?

প্রশ্ন

গোশতকে “মাংশ” বলা যাবে কি না?

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

আসলে শব্দটির বানান “মাংশ” লিখা সঠিক নয়। সঠিক বানান হল “মাংস”। আমাদের জানা মতে বাংলা ভাষার কোন অভিধানেই বানানটি “মাংশ” লেখা হয়নি। “মাংস” লেখা হয়েছে।

আসলে বানানের এ ধুম্রজালের মাধ্যমেই বিতর্কটি উস্কে দেয়া হয়েছে যে, মাংশ মানে হল, মায়ের অংশ। [আস্তাগফিরুল্লাহ]

যেহেতু হিন্দুরা গরুকে মা বলে থাকে। তাই গরুর গোস্তকে তারা “মাংশ” তথা মায়ের অংশ বলে পরিচয় দেয়।

এটি একটি প্রচলিত কথা। বাস্তবে এর কোন প্রমাণ আছে বলে আমাদের জানা নেই। যদি উপরোক্ত বিশ্বাসেই গরুর গোস্তকে মাংস বলা হয়ে থাকে, তাহলে খাসি ও মহিষের গোস্তকে কেন মাংস বলা হয়?

বকরী মহিষকেতো হিন্দুরা মা মনে করে না।

তাহলে বুঝা গেল, এখানে ধর্মীয় আবেগের নামে একটি অহেতুক বিষয়কে উস্কে দেয়া হয়েছে। মূলত বিষয়টি এমন নয়।

তাই গরু ও অন্য হালাল পশুর গোস্তকে ‘মাংস’ বলাতে কোন সমস্যা নেই।

তবে, যদি গরুকে মা বলে বিশ্বাস করে মায়ের অংশ মনে করেই গরুর গোস্তকে ‘মাংস’ বলা প্রমাণিত হয়, তাহলে এ শব্দটি অবশ্যই বর্জনীয় হবে।

কিন্তু প্রমাণিত বলে এখনো সঠিক তথ্য উপাত্ত আমরা পাইনি। তবে সতর্কতা স্বরূপ শব্দটি বর্জন করা যেতে পারে।

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

তারাবীহ সালাতের চার রাকাত পর বসে প্রচলিত “সুবহানা জিলমুলুকি ওয়ালমালাকুতু” যে দুআ পড়া হয় এর কোন ভিত্তি আছে কি?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারকাতুহ। ১) তারাবীহ নামাজের চার রাকাত পর পর কোন দোয়া পড়া …