হোম / আদব ও আখলাক / মহিলাদের জন্য আস্তে কথা বলা ফরজ?

মহিলাদের জন্য আস্তে কথা বলা ফরজ?

প্রশ্ন

মেয়েদের আস্তে কথা বলা ফরজ। এ বিষয়ে কোরআন ও হাদিস কি বলেছে? আর যে সব নারীরা উচ্চ স্বরে কথা বলে কি বলা হয়েছে? হাদিসের আলোকে জানতে চাই।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

আস্তে কথা বলা ফরজ এভাবে বলা উচিত হবে না। বাকি প্রয়োজন ছাড়া জোরে কথা না বলাই উচিত। তবে প্রয়োজনে জোরে কথা বলা জায়েজ আছে। পরপুরুষকে আকৃষ্ট করার মানসে বা আকৃষ্ট হবার শংকা থাকলে জোরে কথা বলা জায়েজ নয়।

إِنِ اتَّقَيْتُنَّ فَلَا تَخْضَعْنَ بِالْقَوْلِ فَيَطْمَعَ الَّذِي فِي قَلْبِهِ مَرَضٌ وَقُلْنَ قَوْلًا مَعْرُوفًا (32) وَقَرْنَ فِي بُيُوتِكُنَّ وَلَا تَبَرَّجْنَ تَبَرُّجَ الْجَاهِلِيَّةِ الْأُولَى

তোমরা যদি আল্লাহকে ভয় পাও তবে আকর্ষণধর্মী ভঙ্গিতে কথা বলনা, যাতে যাদের মাঝে যৌনলিপ্সা আছে তারা তোমাদের প্রতি আকৃষ্ট হয়। বরং তোমরা স্বাভাবিক কথা বল। এবং তোমরা অবস্থান কর স্বীয় বসবাসের গৃহে, জাহেলী যুগের মেয়েদের মত নিজেদের প্রকাশ করো না। {সূরা আহযাব-৩২}

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

         

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

হযরত ইবরাহীম আলাইহিস সালাম কী হজ্ব করেছেন?

প্রশ্ন হযরত ইবরাহীম আলাইহিস সালাম কী হজ্জ করেছেন? প্রমাণসহ জানালে উপকৃত হবো। উত্তর بسم الله …