হোম / অজু/গোসল/পবিত্রতা/হায়েজ/নেফাস / পেশাব করার পর ঢিলা বা টিস্যু ব্যবহার না করলে ব্যক্তি পবিত্র হয় না?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

পেশাব করার পর ঢিলা বা টিস্যু ব্যবহার না করলে ব্যক্তি পবিত্র হয় না?

প্রশ্ন

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ৤

আল্লাহ আপনাদের এই দ্বীনি খেদমতের প্রয়াসকে কবুল করুন৤

প্রশ্নকর্তা:মোহাম্মদ হানিফ

কাইচাবাড়ী, আশুলিয়া, ঢাকা

প্রশ্ন: আমাদের মসজিদের ইমাম সাহেব যিনি প্রস্রাব করার পর শুধু পানি ব্যবহার করেই উঠে যান৤ তাঁকে টিস্যু বা ঢিলা ব্যবহারের পর পানি ব্যবহারের কথা বললে তিনি বলেন এটি হচ্ছে এতমিনানের বিষয়৤ কথাটি কতটুকু যুক্তিযুক্ত৤ আমাদের নিজেদের ব্যাপারে তো দেখি কিছু সময় উঠা-বসা বা হাটাহাটি না করলে প্রস্রাব ঝরতে থাকে৤ প্রস্রাব থেকে পাক হওয়ার সঠিক পদ্ধতি কি এবং ঐ ইমামের পিছনে নামাজ পড়ার হুকুম কি? যথা শ্রীঘ্র উত্তরের আশায় রইলাম৤

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

ইমাম সাহেবের কথা ঠিকই আছে। পেশাব থেকে পবিত্র হওয়া আবশ্যক। এখন কারো পেশাব করে পানি ব্যবহার করা দ্বারাই সে পবিত্র হয়ে যায়। তার পেশাব ঝরে না। আবার কারো একটু বসে থাকলে, একটু দাড়ালে, নড়াচড়া করলে অবশিষ্ট পেশাব বের হয়। যার যেভাবে পবিত্র হয়, সে সেইভাবে পবিত্র হবে। পবিত্র হওয়াটা মাকসাদ। যেন কিছুতেই শরীরে পেশাবের ছিটা না পড়ে।

তো, কারো যদি পানি ব্যবহার করলেই চলে, তাহলে তাকে ঢিলা ব্যবহারে বাধ্য করার কোন মানে হয় না। বাকি যার ঝরতে থাকে, তার টিস্যু বা ঢিলা ব্যবহার করতে হবে। যেন পেশাবের ছিটা থেকে পবিত্র থাকা যায়।

عَنِ ابْنِ عَبَّاسٍ، قَالَ: مَرَّ النَّبِيُّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بِقَبْرَيْنِ، فَقَالَ: ” إِنَّهُمَا لَيُعَذَّبَانِ، وَمَا يُعَذَّبَانِ فِي كَبِيرٍ، أَمَّا أَحَدُهُمَا: فَكَانَ لَا يَسْتَنْزِهُ مِنَ البَوْلِ – قَالَ وَكِيعٌ: مِنْ بَوْلِهِ – وَأَمَّا الْآخَرُ: فَكَانَ يَمْشِي بِالنَّمِيمَةِ “.

হযরত আব্দুল্লাহ বিন আব্বাস রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, একদা রাসূল সাঃ দু’টি কবরের পাশ দিয়ে অতিক্রম হচ্ছিলেন। বললেন, এ দু’টি কবরে আযাব হচ্ছে। কোন বড় কারণে আজাব হচ্ছে না। একজনের কবরে আজাব হচ্ছে সে পেশাব থেকে ভাল করে ইস্তিঞ্জা করতো না। আরেকজন চোগোলখুরী করতো। {মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং-১৯৮০, বুখারী, হাদীস নং-১৩৬১}

عَنْ عِيسَى بْنِ يَزْدَادَ الْيَمَانِيِّ، عَنْ أَبِيهِ، قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: «إِذَا بَالَ أَحَدُكُمْ فَلْيَنْتُرْ ذَكَرَهُ ثَلَاثَ مَرَّاتٍ»

হযরত ঈসাব বিন ইয়াযদাদ আলইয়ামানী তার পিতা থেকে বর্ণনা করেন। রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেন, যখন তোমাদের কেউ পেশাব করে, তখন সে যেন তার লজ্জাস্থানকে তিনবার ঝেড়ে নেয় বা পবিত্র করে নেয়। {সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৩২৬}

وَمَنْ اسْتَجْمَرَ فَلْيُوتِرْ، مَنْ فَعَلَ فَقَدْ أَحْسَنَ، وَمَنْ لَا فَلَا حَرَجَ،

যে ব্যক্তি ঢিলা ব্যবহার করে সে যেন বেজোড় ব্যবহার করে। যে তা করবে সে উত্তম কাজ করল, আর যে করেনি তাতে কোন সমস্যা নেই। {সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-৩৫}

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

“স্ত্রীকে ছেড়ে দেবার কথা বলেছে কী না” সন্দেহ হলে তালাক হয়ে যায়?

প্রশ্ন সম্মানিত মুফতি সাহেব আসসালামু আলাইকুম। আমার একটা প্রশ্নের উত্তর চাই। কোন এক ব্যাক্তি তালাক …