হোম / তালাক/ডিভোর্স / তালাকপ্রাপ্তা নারী ইদ্দত কতদিন ও কোথায় ও কিভাবে পালন করবে?

তালাকপ্রাপ্তা নারী ইদ্দত কতদিন ও কোথায় ও কিভাবে পালন করবে?

প্রশ্ন

আমি ১টি পাবলিক ভার্সিটি তে পড়ি। সাড়ে তিন বছর আগে পরিবারের কাউকে না জানিয়ে বিয়ে করি গুনাহ থেকে বাঁচতে। ২০১২ থেকে আমার স্বামি তারপর আমি তাবলিগে এ দীনি পথে চলা শুরু করি। আমার স্বামির সাথে আমার অনেক কিছু নিয়া ঝগড়া হয়। মাঝে মাঝে আমদের ছাড়াছাড়ির পর্যায়ে চলে জায়। আমি তালাকটা এ জন্য হতে দিচ্ছি না যে,  আমার ইদ্দত পালন করতে সমস্যা। আমার স্বামি আমাকে তালাক দিলে আমার কিভাবে ইদ্দত পালন করতে হবে? যেহেতু আমার বিয়ের কথা পরিবারের কেউ জানেনা, তাই আমি চাই লুকিয়ে ইদ্দত পালন করতে। আমাকে কি বাসায় বসে থাকতে হবে? আমি ৪মাস ১০দিন পর্যন্ত কাউকে বিয়ে না করে শুধু ক্লাস করার জন্য রুম থেকে বের হলে ইদ্দত পালন হবে?(আমার হল থেকে ক্যাম্পাস খুব কাছে,আমাদের মাঝে শারিরিক সম্পর্ক হয়েছে)। এই অবস্থায় আমার স্বামি তালাক দিলে ইদ্দত কিভাবে পালন করব?

প্লিজ আমাকে একটু দয়া করে জানাবেন। জানাটা আমার খুব দরকার।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

তালাকপ্রাপ্তা মহিলার ইদ্দত হল তিন হায়েজ অতিক্রম হওয়া। অর্থাৎ তালাকপ্রাপ্তা হবার পর স্বামীর সাথে যে বাড়িতে থাকতো সেখানে, যদি তা সম্ভব না হয়, তাহলে নিকটতম নিরাপদ বাড়িতে তিন হায়েজ পরিমাণ সময় অবস্থান করবে। এ সময় সাজগুজ, ঘুরাঘুরি ইত্যাদি করতে পারবে না। তীব্র প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাহিরে যাবে না। বিশেষ করে রাতে অন্য কোথাও থাকতে পারবে না। সন্ধ্যার আগেই আবশ্যকীয় প্রয়োজন সেরে বাড়িতে চলে আসতে হবে।

উপরোক্ত বিধান অনুপাতে আপনার হুকুম আপনি নিজেই বের করে নিতে পারবেন। তালাকের ইদ্দত পালনকালে তীব্র প্রয়োজনে বাহিরে যাওয়া যাবে। অন্যথায় যাবে না। সেই হিসেবে ক্লাসে অংশ না নেয়াই উচিত। বাকি বেশি জরুরত থাকলে যাওয়া যাবে, কিন্তু সন্ধ্যার আগে অবশ্যই বাসায় ফিরতে হবে।

وَجَوَّزَ فِي الْقُنْيَةِ خُرُوجَهَا لِإِصْلَاحِ مَا لَا بُدَّ لَهَا مِنْهُ كَزِرَاعَةٍ وَلَا وَكِيلَ لَهَا (طَلُقَتْ) أَوْ مَاتَ وَهِيَ زَائِرَةٌ (فِي غَيْرِ مَسْكَنِهَا عَادَتْ إلَيْهِ فَوْرًا) لِوُجُوبِهِ عَلَيْهَا

(وَتَعْتَدَّانِ) أَيْ مُعْتَدَّةُ طَلَاقٍ وَمَوْتٍ (فِي بَيْتٍ وَجَبَتْ فِيهِ) وَلَا يَخْرُجَانِ مِنْهُ (إلَّا أَنْ تُخْرَجَ أَوْ يَتَهَدَّمَ الْمَنْزِلُ، أَوْ تَخَافُ) انْهِدَامَهُ، أَوْ (تَلَفَ مَالِهَا، أَوْ لَا تَجِدَ كِرَاءَ الْبَيْتِ) وَنَحْوَ ذَلِكَ مِنْ الضَّرُورَاتِ فَتَخْرُجُ لِأَقْرَبِ مَوْضِعٍ إلَيْهِ،

وفى رد المحتار: وَأَمَّا الْخُرُوجُ لِلضَّرُورَةِ فَلَا فَرْقَ فِيهِ بَيْنَهُمَا كَمَا نَصُّوا عَلَيْهِ فِيمَا يَأْتِي، فَالْمُرَادُ بِهِ هُنَا غَيْرُ الضَّرُورَةِ،

 (الدر المختار مع رد المحتار، كتاب الطلاق، باب العدة، فصل فى الحداد-5/225، البحر الرائق، باب العةة، فصل فى الحداد-4/154، هداية-2/42)

তালাক না নিয়ে, ছাড় দেবার মানসিকতা নিয়ে বিয়েটি টিকানোর চেষ্টা করুন। আর এভাবে পরিবারকে না জানিয়ে বিয়ে করাটা আপনাদের উচিত হয়নি। ভবিষ্যতে এহেন কাজ করা থেকে সতর্ক থাকুন।

দাওয়াত ও তাবলীগের মেহনতে যেহেতু দ্বীনে সমঝ এসেছে। সেটিকে কাজে লাগান। বেশি বেশি দ্বীনের কাজের সাথে জুড়–ন। আল্লাহর কাছে দুআ করুন। ইনশাআল্লাহ মনোমালিন্য দূর হবে। আমরা দুআ করি। আল্লাহ তাআলা আপনাদের কল্যাণী ফায়সালা করার তৌফিক দান করুন। মুসিবত থেকে হিফাযত করুন। আমীন।

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

তারাবীহ সালাতের চার রাকাত পর বসে প্রচলিত “সুবহানা জিলমুলুকি ওয়ালমালাকুতু” যে দুআ পড়া হয় এর কোন ভিত্তি আছে কি?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারকাতুহ। ১) তারাবীহ নামাজের চার রাকাত পর পর কোন দোয়া পড়া …