হোম / পর্দা/দুগ্ধপান/হুরমত / কত বয়সে এবং কতটুকু দুধ পান করলে দুধপান সম্পর্কিত হুরমতের বিধান আরোপিত হবে?

কত বয়সে এবং কতটুকু দুধ পান করলে দুধপান সম্পর্কিত হুরমতের বিধান আরোপিত হবে?

প্রশ্ন

১.কোন বাচচা তার দুধমার বোটা গালে প্রবেশ করালে হুরমতে রেজায়াত ছাবিত হবে কি?
২.সামী তার স্ত্রীর বোডা চুষলে বা দূধ পান করলে হুরমত ছাবিত হবে কিনা।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

কিছু মনে করবেন না। প্রশ্ন করার আগে দয়া করে শালীন শব্দ চয়নের দিকে খেয়াল রাখার চেষ্টা করুন।

উপরোক্ত প্রশ্ন দু’টি আরেকটি সুন্দর শব্দেও করা যেতো।

যেহেতু আমরা প্রশ্নকারীর প্রশ্নের ধরণ অনুপাতে জবাব দিয়ে থাকি, তাই প্রশ্নকারীর শব্দগুলো সাধারণতঃ পরিবর্তন করি না, যাতে করে প্রশ্ন পরিবর্তনের অভিযোগ আমাদের উপর আরোপিত না হয়।

যাইহোক, আপনার উপরক্ত দু’টি প্রশ্নের উত্তর মূলত ২টি বিষয় জানার উপর নির্ভরশীল। যথা-

কোন বয়সী মানুষ মহিলার দুধ পান করলে দুগ্ধপান সম্পর্কিত হুরতম সাব্যস্ত হয়?

কতটুকু দুগ্ধপান করলে দুগ্ধপান সম্পর্কিত হুরমত সাব্যস্ত হয়?

এ দুই প্রশ্নের জবাব হল, শিশুদের দুগ্ধপান করার সময়সীমা তথা দুই বা আড়াই বছরের মাঝে কোন সন্তান যদি কোন মহিলার স্তনের দুধ এক ফোটাও গলধকরণঃ করে থাকে, তাহলেই হুরমতে রিজাআত তথা দুগ্ধ সম্পর্কিত হুরমত প্রমাণিত হবে। এরপর দুধ পান করলে দুধ পান সম্পর্কিত হুরতের বিধান আরোপিত হবে না।

তাহলে এর মাঝে আমরা দু’টি বিষয় বুঝতে পারলাম। যথা-

হুরমতে রেজাআত বা দুগ্ধপান সম্পর্কিত হুরমত প্রমাণিত হবার বয়সসীমা হল দুই বা আড়াই বছর। এর পরের দুগ্ধপানের সাথে দুগ্ধপান সম্পর্কিত হুরমত প্রমাণিত হয় না।

এক ফোটা পরিমাণও দুধ যদি কোন শিশু গলধঃকরণ করে, তাহলে এর দ্বারাই দুগ্ধপান সম্পর্কিত হুরমত সাব্যস্ত হয়।

সুতরাং আপনার প্রশ্ন দু’টির জবাব হল, দুই বা আড়াই বছরের বয়স থাকা অবস্থায় বাচ্চা শিশু যদি কোন মহিলার এক ফোটা দুধও পান করে থাকে, তাহলে দুধপান সম্পর্কিত হুরমত সাব্যস্ত হবে।

শুধু বোটা মুখে নেবার দ্বারা, বা একবার দুইবার চোষার দ্বারাও হুরমত সাব্যস্ত হবে না। যদি না দুধ গলধঃকরণ হয়।

আর দুই বা আড়াই বছর পর দুধপান করলে যেহেতু হুরমতের হুকুম আরোপ হয় না, তাই প্রাপ্ত বয়স্ক স্বামী তার স্ত্রীর দুধ পান করার দ্বারা দুধপান সম্পর্কিত হুরমত প্রমাণিত হবে না। যদিও কাজটি ভাল নয়।

وَحَمْلُهُ وَفِصَالُهُ ثَلَاثُونَ شَهْرًا ۚ [٤٦:١٥

তাকে গর্ভে ধারণ করতে ও তার স্তন্য ছাড়তে লেগেছে ত্রিশ মাস। [সূরা আহকাফ-১৫]

وَأُمَّهَاتُكُمُ اللَّاتِي أَرْضَعْنَكُمْ وَأَخَوَاتُكُم مِّنَ الرَّضَاعَةِ وَأُمَّهَاتُ نِسَائِكُمْ [٤:٢٣

তোমাদের জন্যে হারাম করা হয়েছে তোমাদের মাতা, তোমাদের কন্যা, তোমাদের বোন, তোমাদের ফুফু, তোমাদের খালা, ভ্রাতৃকণ্যা; ভগিনীকণ্যা তোমাদের সে মাতা, যারা তোমাদেরকে স্তন্যপান করিয়েছে,[সূরা নিসা-২৩]

عَنِ ابْنِ مَسْعُودٍ، قَالَ: «لَا رِضَاعَ إِلَّا مَا شَدَّ الْعَظْمَ وَأَنْبَتَ اللَّحْمَ

হযরত আব্দুল্লাহ বিন মাসঊদ রাঃ থেকে বর্ণিত। দুধপান করানোর অর্থই হল, [পানকারীর] অস্থি মজবুত করানো এবং গোশত বৃদ্ধি করা। [আবু দাউদ, হাদীস নং-৫০৫৯]

عَنْ جَابِرٍ، أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ: «لَا رَضَاعَ بَعْدَ فِصَالٍ

হযরত জাবের রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, দুধ ছাড়ানোর [সময়সীমা শেষ হবার] পর আর দুগ্ধপান [সম্পর্কিত হুরমতের বিধান] নেই। [মুসনাদে আবু দাউদ তায়ালিছী, হাদীস নং-১৮৭৬]

 وفى رد المحتار-( ولم يبح الإرضاع بعد مدته ) لأنه جزء آدمي والانتفاع به لغير ضرورة حرام على الصحيح (الدر المختار مع رد المحتار-كتاب النكاح،  باب الرضاع-4/397

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

মুহাদ্দিস-জামিয়া উবাদা ইবনুল জাররাহ, ভাটারা ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

         

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

অনির্ধারিত কাযা রোযার ফিদিয়া কিভাবে আদায় করবে?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম সম্মানিত শায়খ, আশা করি আল্লাহর রহমতে ভালো আছেন।আমার কিছু প্রশ্ন ছিলো। দয়া …