হোম / ওয়াকফ/মসজিদ/ঈদগাহ / যাকাতের টাকা মসজিদে ব্যবহার করার হিলা কী?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

যাকাতের টাকা মসজিদে ব্যবহার করার হিলা কী?

প্রশ্ন

তেজকুনি পাড়া

ফার্মগেইট,ঢাকা।

আস্সালামু আলাইকুম অরাহমাতুল্লাহ্

মুহতারাম, নিন্মে উল্লেখিত প্রশ্নের উত্তর দানে বাধিত করবেন।

আমার নিকট যাকাতের কিছু টাকা ছিল যা আমি একজন পরিচিত গরিবকে দিয়ে হিলা করে মসজিদের কাজে ব্যবহার করেছি (হিলার ধরনটা ছিল এমন, আমি একদিন তাকে মসজিদে দানের সওয়াবের ব্যাপারে উৎসাহ মূলক আলোচনা করে বললাম তোমার কি মসজিদে দান করতে মন চায় ? সে বলল কোত্থেকে দান করব আমার কাছে তো টাকা নাই। আমি বললাম যদি তোমাকে কিছু টাকা দেওয়া হয় তাহলে কি তুমি তা মসজিদে দান করবে ? সে বলল করব। তখন তাকে বলা হল এই নাও এখানে কিছু টাকা আছে তুমি ইচছা করলে মসজিদে দান করতে পার) আমার হিলাটা সঠিক হয়েছে কিনা জানাবেন। এখানে উল্লেখ্য যে আমাদের মসজিদটি একটি গ্রাম্য এলাকায় অব¯িহত যেখানের বাসিন্দারা আর্থিকভাবে অসচ্ছল। মসজিদের একটি কাজ অনেকদিন থেকে অসমাপ্ত অবস্থায় ছিল সে কাজটি সম্পন্ন করতে এই হিলার আশ্রয় নেওয়া হয়েছিল।

মা’-আস্সালাম

মোঃ সাইফুল্লাহ ভ’ইয়া

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

মসজিদ আল্লাহর ঘর। পবিত্র স্থান। এখানে সর্বাধিক বিশুদ্ধ ও স্বচ্ছ টাকা ব্যবহার করা উচিত। এভাবে হিলা করে যাকাতের টাকা নেয়া উচিত নয়। তবে যদি উপরোক্ত হিলার কাজটি সম্পন্ন করার সময়, যাকে টাকাটি দেয়া হচ্ছে, তাকে যদি বলা হয় যে, “তোমাকে যে টাকা দেয়া হচ্ছে, তা যাকাতের টাকা। আমি তোমাকে এ টাকা প্রদান করছি যাকাত হিসেবে। তোমাকে প্রদান করার দ্বারা তুমি এর মালিক হয়ে যাবে। ইচ্ছে করলে এ টাকা তুমি নিজে রেখে দিতে পারবে। ইচ্ছে করলে দানও করতে পারবে। এতে আমার কোন এখতিয়ার থাকবে না।”

এভাবে বিষয়টি পরিস্কার করে দেবার পর যদি উক্ত ব্যক্তি টাকা প্রাপ্ত হবার পর মসজিদে দান করে, তাহলেই কেবল আপনার যাকাতও আদায় হবে। আবার টাকাটি মসজিদের জন্য ব্যয় করা বৈধ হবে।

লোকটিকে বাধ্য করে টাকা প্রদান করে, মসজিদে নিয়ে নিলে যাকাত আদায় হবে না। তাহলে এতে করে উক্ত ব্যক্তি মূলত টাকাটির মালিকই হয় না। বরং একটি ছুতো মাত্র। আর যাকাত আদায় হবার জন্য যাকাত খাবার যোগ্য ব্যক্তিকে যাকাতের মালিক বানিয়ে দিতে হয়। যাতে করে যাকাতপ্রাপ্ত ব্যক্তি নিজের ইচ্ছেমত হস্তক্ষেপ করতে পারে।

এক্ষেত্রে উত্তম হিলা হল, গরীব ব্যক্তিকে বলা যে, তুমি ঋণ করে মসজিদে এত টাকা দান কর। তাহলে আমরা তোমার ঋণ পরিশোধের ব্যবস্থা করে দিবো। তারপর গরীব ব্যক্তিটি কারো কাছ থেকে ঋণ করে যত টাকা মসজিদে দান করে দিল। তত টাকা উক্ত গরীব ব্যক্তিকে যাকাত হিসেবে প্রদান করা হল। এ সূরতটিতে যাকাতও আদায় হবে। আবার মসজিদের প্রয়োজনও মিটে যাবে।

وَحِيلَةُ الْجَوَازِ أَنْ يُعْطِيَ مَدْيُونَهُ الْفَقِيرَ زَكَاتَهُ ثُمَّ يَأْخُذَهَا عَنْ دَيْنِهِ، (رد المحتار، كتاب الزكاة، مطلب فى زكاة ثمن المبيع وفاء-3/190-191)

والحيلة ان يتصدق على الفقير ثم يأمره بفعل هذه الأشياء فتكون لرب المال ثواب الزكاة وللفقير ثواب هذا التقرب، (سكب الانهر على مجمع الانهر، كتاب الزكاة، باب فى بيان احكام المصرف-1/329، رد المحتار، كتاب الزكاة، باب المصرف-3/293)

وَيُشْتَرَطُ أَنْ يَكُونَ الصَّرْفُ (تَمْلِيكًا) لَا إبَاحَةً كَمَا مَرَّ (لَا) يُصْرَفُ (إلَى بِنَاءِ) نَحْوِ (مَسْجِدٍ وَ) (الى قوله) وقدمنا ان الحيلة ان يتصدق على الفقير ثم يأمره بفعل هذه الأشياء وهل له يخالف امره؟ لم أره والظاهر نعم،

لأنه مقتضى صحة التمليك، (رد المحتار، كتاب الزكاة، باب المصرف-3/291-294

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

মুহাদ্দিস-জামিয়া উবাদা ইবনুল জাররাহ, ভাটারা ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

নামাযরত অবস্থায় শিশু মায়ের স্তন থেকে দুধ পান করে ফেললে নামাযের হুকুম কী?

প্রশ্ন আসসালামু আলাইকুম। মুফতী সাহেবের কাছে আমার প্রশ্ন হল, মহিলা নামায পড়ছে। তাশাহুদে বসার সময় …