হোম / ওয়াকফ/মসজিদ/ঈদগাহ / পরিত্যাক্ত পুরাতন মসজিদের স্থানে পাঠাগার করা যাবে কি?

পরিত্যাক্ত পুরাতন মসজিদের স্থানে পাঠাগার করা যাবে কি?

প্রশ্ন

হুজুর আমার প্রশ্ন হল,

পরিত্যক্ত পুরাতন মসজিদ এর জায়গায় পাঠাগার করা জায়েজ  আছে কিনা

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

না, জায়েজ নেই। যা একবার শরয়ী মসজিদে পরিণত হয়, তা কিয়ামত পর্যন্ত মসজিদই বাকি থাকে। কোন মসজিদকে পরিত্যাক্ত করাও বৈধ নয়। হ্যাঁ, যদি আবশ্যকীয় কোন কারণে মসজিদটি অনাবাদ হয়ে পড়ে, তাহলে উক্ত মসজিদের চৌহদ্দিকে দেয়াল বা বেড়া দিয়ে আটকে দিতে হবে। যাতে বুঝা যায়, এটি সম্মানিত স্থান মসজিদ ছিল। উক্ত স্থানকে অন্য কোন কাজে ব্যবহার করা জায়েজ হবে না।

قوله تعالى : وأنّ المساجد لله فلا تدعوا مع الله أحداً ( (سورة الجن : 18 )

وفى الفتاوى الشامية– أما لو تمت المسجدية ثم أراد البناء منع ……. ولا يجوز أخذ الأجرة منه ولا أن يجعل شيئا منه مستغلا ولا سكنى بزازية (الفتاوى الشامية –كتاب الوقف، مطلب فى احكام المسجد، 6/548)

وفيه ايضا وحاصله أن شرط كونه مسجدا أن يكون سفله وعلوه مسجدا لينقطع حق العبد عنه لقوله تعالى { وأن المساجد لله } (الفتاوى الشامية –كتاب الوقف، مطلب فى احكام المسجد، 6/547)

وفيه ايضا- لأنه مسجد إلى عنان السماء وكذا إلى تحت الثرى كما في البيري عن الإسبيجابي (الفتاوى الشامية –كتاب الصلاة، باب ما يفسد الصلاة وما يكره فيها، مطلب فى احكام المسجد، 2/428)

لا يجوز نقض المسجد ولا بيعه ولا تعطيله وان خربت المحلة (تفسير قرطبى، سورة بقرة، الآية-114-1/7، تفسير المراغى-1/198، تفسير بيضاوى-1/386)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– কাসিমুল উলুম আলইসলামিয়া, আমীনবাজার ঢাকা।

মুহাদ্দিস– মাদরাসা উবাদা ইবনুল জাররাহ, ভাটারা ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

 

         

Print Friendly, PDF & Email

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

ঈদের রাতে অসুস্থ্য কুরবানীর পশু কুরবানীর নিয়তে জবাই করলে কুরবানী হবে কি?

প্রশ্ন আমার প্রশ্ন হল, কুরবানীর জন্য ক্রয় করা একটি পশু ঈদের আগের দিন রাতে হঠাৎ …