হোম / কাফন-দাফন-জানাযা / দাফন করার পর মৃতকে তালকীন করানোর হুকুম কী?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

দাফন করার পর মৃতকে তালকীন করানোর হুকুম কী?

প্রশ্ন

মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম,
পরশুরাম, ফেনী।
আস্সালামু আলাইকুম,
জনাব মুফতি সাহেব।
আমাদের এলাকায় নিয়ম রয়েছে যে, কোন ব্যক্তি মারা গেলে কবরে রেখে মাটি দেয়ার পর,কোন একজন মৌলবি এসে কবরে হাত দিয়ে মৃত ব্যক্তিকে সোয়াল-জাওয়াব করেন, এবং উনি উত্তর শিখিয়ে দেন, এটাকে নাকি তালকীন বলে।
আমার প্রশ্ন হল তালকীন শরিয়তে জায়েজ আছে কি?
এবং যদি থাকে তার পদ্ধতি কি?
জানালে কৃতজ্ঞ হবো।

উত্তর

وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

এমনটি করা ঠিক নয়।

তবে এ সংক্রান্ত একটি হাদীস বর্ণিত হয়েছে। আলমু’জামুল কাবীর লিততাবারনী, হাদীস নং-৭৯৭৯, মাযমাউজ যাওয়ায়েদ, হাদীস নং-৩৯১৮।

হাদীসটি নিতান্তই দুর্বল।

যার আরবী পাঠ হল,

عَنْ سَعِيدِ بْنِ عَبْدِ اللهِ الْأَوْدِيِّ، قَالَ: شَهِدْتُ أَبَا أُمَامَةَ وَهُوَ فِي النَّزْعِ، فَقَالَ: إِذَا أَنَا مُتُّ، فَاصْنَعُوا بِي كَمَا أَمَرَنَا رَسُولُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَنْ نصْنَعَ بِمَوْتَانَا، أَمَرَنَا رَسُولُ اللهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَقَالَ: ” إِذَا مَاتَ أَحَدٌ مِنْ إِخْوَانِكُمْ، فَسَوَّيْتُمِ التُّرَابَ عَلَى قَبْرِهِ، فَلْيَقُمْ أَحَدُكُمْ عَلَى رَأْسِ قَبْرِهِ، ثُمَّ لِيَقُلْ: يَا فُلَانَ بْنَ فُلَانَةَ، فَإِنَّهُ يَسْمَعُهُ وَلَا يُجِيبُ، ثُمَّ يَقُولُ: يَا فُلَانَ بْنَ فُلَانَةَ، فَإِنَّهُ يَسْتَوِي قَاعِدًا، ثُمَّ يَقُولُ: يَا فُلَانَ بْنَ فُلَانَةَ، فَإِنَّهُ يَقُولُ: أَرْشِدْنَا رَحِمَكَ اللهُ، وَلَكِنْ لَا تَشْعُرُونَ. فَلْيَقُلْ: اذْكُرْ مَا خَرَجْتَ عَلَيْهِ مِنَ الدُّنْيَا شَهَادَةَ أَنْ لَا إِلَهَ إِلَّا اللهُ، وَأَنَّ مُحَمَّدًا عَبْدُهُ وَرَسُولُهُ، وَأَنَّكَ رَضِيتَ بِاللهِ رَبًّا، وَبِالْإِسْلَامِ دِينًا، وَبِمُحَمَّدٍ نَبِيًّا، وَبِالْقُرْآنِ إِمَامًا، فَإِنَّ مُنْكَرًا وَنَكِيرًا يَأْخُذُ وَاحِدٌ مِنْهُمْا بِيَدِ صَاحِبِهِ وَيَقُولُ: انْطَلِقْ بِنَا مَا نَقْعُدُ عِنْدَ مَنْ قَدْ لُقِّنَ حُجَّتَهُ، فَيَكُونُ اللهُ حَجِيجَهُ دُونَهُمَا “. فَقَالَ رَجُلٌ: يَا رَسُولَ اللهِ، فَإِنْ لَمْ يَعْرِفْ أُمَّهُ؟ قَالَ: «فَيَنْسُبُهُ إِلَى حَوَّاءَ، يَا فُلَانَ بْنَ حَوَّاءَ»

এ যেহেতু একটি বর্ণনা এসেছে যদিও বর্ণনাটি দুর্বল। তাই উলামায়ে কেরাম বলেছেন, যদি কেউ এমনটি করে থাকে, তাহলে তাকে বাঁধা না দেয়া। কিন্তু এ বিষয়ে বাড়াবাড়ি করা কিছুতেই উচিত নয়। [ফাতাওয়া মাহমুদিয়া-১৩/৭৫-৭৬, কিতাবুন নাওয়াজেল-৬/২২৬]

(وَلَا يُلَقَّنُ بَعْدَ تَلْحِيدِهِ) وَإِنْ فُعِلَ لَا يُنْهَى عَنْهُ. (الدر المختار مع رد المحتار-3/80-81)

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা-জামিয়া ফারুকিয়া দক্ষিণ বনশ্রী ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

এক তালাক প্রদানের পর ইদ্দত শেষ হলে করণীয় কী? স্ত্রী না শুনতে পেলে তালাক হয় না?

প্রশ্ন আসালামু আলাইকুম, অনেক চেষ্টার করেও একবন্ধুর স্ত্রী প্রায় ৮-৯ মাস পরেও মায়ের বাড়িতে থেকে …