হোম / দুআ-দরূদ ও অজীফা / কালিমায়ে তাইয়্যিবাহ শেষে দরূদ পড়া কি বিদআত?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন


বিজ্ঞাপন বিভাগ : 02971547074038  01922319514
Hafiz Khasru  Din Islam বিস্তারিত»


বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

কালিমায়ে তাইয়্যিবাহ শেষে দরূদ পড়া কি বিদআত?

প্রশ্ন

From: মামুন মিয়া
বিষয়ঃ বিদ’আত

আসসালামুয়ালাইকুম।
আমি ভারত থেকে বলছি।
আমাদের মদজিদের ইমাম সাহেব বলেছেন, কালিমা তাইয়্যেবাহ এর পর কোনো দুরুদ শরীফ নেই,। যতটুকু ওহি এসেছে ঠিক ততটুকু বলতে হবে, একে কমানোও যাবেনা, বাড়ানোও যাবেনা।
কিন্তু এখন প্রায় ওয়াজ মাহফিলে দেখা যাই মাওলানা সাহেবগন কালিমা তাইয়্যেবাহ পড়ার পর শ্রোতাদেরকে তরগিব দেয় সকলে বলুন সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম।
এখন প্রশ্ন হলো, আমাদের ইমাম সাহেব যা বলেছেন তা ঠিক? নাকি  ঐ মাওলানা সাহেব দের কথা ঠিক?
আমরা এখন আমাদের ইমাম সাহেবের কথা মানব, নাকি মাওলানা সাহেব দের?
আশা করি সঠিক উত্তর জানাবেন।

উত্তর

وعليكم السلام ورحة الله وبركاته

بسم الله الرحمن الرحيم

ইমাম যা বলেছেন সঠিকই বলেছেন। কালিমায়ে তাইয়্যিবাহ এর পর কোন দরূদের কথা আসেনি। দরূদ কালিমার অংশ নয়। তাই কালিমার অংশ হিসেবে তা পড়া নিষেধ।

কিন্তু যেহেতু নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নাম শুনলেই দরূদ পড়ার কথা হাদীসে এসেছে। সেই হিসেবে কালিমা শেষ করে, কিছুটা বিরতি দিয়ে বা পড়ার পদ্ধতি পরিবর্তন করে দরূদ পড়া যেতে পারে। তবে কালিমা শেষে একটানা দরূদ পড়বে না। কালিমা শেষ করে মাঝে একটু বিরতি দিয়ে নিবে। বা পড়ার পদ্ধতিতে পরিবর্তন করে নিবে। যেন দরূদ যে কালিমার অংশ নয়, তা বুঝা যায়। [ফাতাওয়া উসমানী ১/৫৪-৫৫]

عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: رَغِمَ أَنْفُ رَجُلٍ ذُكِرْتُ عِنْدَهُ فَلَمْ يُصَلِّ عَلَيَّ،

হযরত আবূ হুরায়রা রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, সে ব্যক্তি অপমানিত হোক, যে ব্যক্তির নিকট আমার নাম উচ্চারণকালে সে আমার উপর দরূদ পাঠ করে না। [সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-৩৫৪৫, মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং-৭৪৫১,সহীহ ইবনে খুজাইমা, হাদীস নং-১৮৮৮]

عَنْ حُسَيْنِ بْنِ عَلِيِّ بْنِ أَبِي طَالِبٍ قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: البَخِيلُ الَّذِي مَنْ ذُكِرْتُ عِنْدَهُ فَلَمْ يُصَلِّ عَلَيَّ

হযরত হুসাইন বিন আলী বিন আবী তালিব রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, সর্বাপেক্ষাবড় কৃপণ সেই ব্যক্তি, যার নিকট আমার নাম উচ্চারণ করা হলে সে আমার উপর দরূদ পড়ে না। [সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-৩৫৪৬]

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা-জামিয়া ফারুকিয়া দক্ষিণ বনশ্রী ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রোপন করা গাছ থেকে কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া ফলমূল খাওয়ার হুকুম কী?

প্রশ্ন From: নাজমুল হাসান বিষয়ঃ সরকারি গাছের ফল খাওয়ার তাহকিক প্রশ্নঃ আসসালামু আলাইকুম, শায়িখ,আমি তেজগাঁও  …