হোম / অপরাধ ও গোনাহ / জুয়া কাকে বলে? মাসআলা প্রমাণে টাকার চ্যালেঞ্জ দেয়া কি জুয়ার অন্তর্ভূক্ত?
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন


বিজ্ঞাপন বিভাগ : 02971547074038  01922319514
Hafiz Khasru  Din Islam বিস্তারিত»


বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

জুয়া কাকে বলে? মাসআলা প্রমাণে টাকার চ্যালেঞ্জ দেয়া কি জুয়ার অন্তর্ভূক্ত?

প্রশ্ন

অনেক আলেম বই বা লিফলেটের মাধ্যমে বিরোধী পক্ষকে দলিল উপস্হাপনের ক্ষেত্রে টাকার চ্যালেঞ্জ ছুড়েন। এটাকি জুয়া খেলায় আহ্বান করার মতো হয়ে যায় না ? এটা শরীআত সম্মত কি?

সুহাইল, শিবগঞ্জ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ।

উত্তর

بسم الله الرحمن الرحيم

প্রথমে বুঝতে হবে জুয়া কাকে বলে? জুয়ার সংজ্ঞা জানা থাকলে আপনি নিজেই বুঝে নিতে পারবেন উপরোক্ত কর্মটি জুয়া হবে কি না?

প্রত্যেক ঐ মুআমালাকে জুয়া বলা হয়, যা লাভ ও লোকশানের মাঝে ঝুলন্ত ও সন্দেহযুক্ত থাকে।  [জাওয়াহিরুল ফিক্বহ-২/৩৩৬]

كُلُّ شَيْءٍ مِنَ الْقِمَارِ فَهُوَ مِنَ الْمَيْسِرِ حَتَّى لَعِبِ الصِّبْيَانِ بِالْجَوْزِ.

প্রত্যেক বাজি মাইছির তথা জুয়ার অন্তর্ভূক্ত এমনকি শিশুদের হারজিতের খেলাও জুয়ার অন্তর্ভূক্ত। [তাফসীরে ইবনে কাসীর-২/১১৬, সূরা মায়িদা, আয়াত নং-৯০-৯৩]

মূলত জুয়া বলা হয়, যা লাভ ও লোকশানের মাঝে ঝুলন্ত থাকে, এমন অর্থের খেলার নাম  জুয়া।

যদি এক পক্ষ থেকে কোন কিছু প্রদানের ঘোষণা করা হয়, যাতে নিজে জিতলে তার কোন লাভ হবে না, হারলে অপরকে পুরস্কার প্রদান করবে। এর নাম জুয়া নয়। এর নাম পুরস্কার প্রদান। হাদিয়া প্রদান।

সুতরাং এটাকে জুয়া বলার কোন সুযোগ নেই।

যদি এভাবে চ্যালেঞ্জ করে যে, আমি জিতলে আমাকে এত টাকা দিতে হবে। আর হারলে আমি এত টাকা দিবো, তাহলে এটি জুয়ার অন্তর্ভূক্ত হবে।

কিন্তু এক পক্ষ থেকে এমন ঘোষণা করলে সেটি জুয়া হবে না।

يَسْأَلُونَكَ عَنِ الْخَمْرِ وَالْمَيْسِرِ ۖ قُلْ فِيهِمَا إِثْمٌ كَبِيرٌ وَمَنَافِعُ لِلنَّاسِ وَإِثْمُهُمَا أَكْبَرُ مِن نَّفْعِهِمَا  [٢:٢١٩]

তারা তোমাকে মদ ও জুয়া সম্পর্কে জিজ্ঞেস করে। বলে দাও, এতদুভয়ের মধ্যে রয়েছে মহাপাপ। আর মানুষের জন্যে উপকারিতাও রয়েছে,তবে এগুলোর পাপ উপকারিতা অপেক্ষা অনেক বড়। [সূরা বাকারা-২১৯]

يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُوا إِنَّمَا الْخَمْرُ وَالْمَيْسِرُ وَالْأَنصَابُ وَالْأَزْلَامُ رِجْسٌ مِّنْ عَمَلِ الشَّيْطَانِ فَاجْتَنِبُوهُ لَعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ [٥:٩٠]

إِنَّمَا يُرِيدُ الشَّيْطَانُ أَن يُوقِعَ بَيْنَكُمُ الْعَدَاوَةَ وَالْبَغْضَاءَ فِي الْخَمْرِ وَالْمَيْسِرِ وَيَصُدَّكُمْ عَن ذِكْرِ اللَّهِ وَعَنِ الصَّلَاةِ ۖ فَهَلْ أَنتُم مُّنتَهُونَ [٥:٩١]

হে মুমিনগণ,এই যে মদ, জুয়া, প্রতিমা এবং ভাগ্য-নির্ধারক শরসমূহ এসব শয়তানের অপবিত্র কার্য বৈ তো নয়। অতএব, এগুলো থেকে বেঁচে থাক-যাতে তোমরা কল্যাণপ্রাপ্ত হও।

শয়তান তো চায়, মদ ও জুয়ার মাধ্যমে তোমাদের পরস্পরের মাঝে শুত্রুতা ও বিদ্বেষ সঞ্চারিত করে দিতে এবং আল্লাহর স্মরণ ও নামায থেকে তোমাদেরকে বিরত রাখতে। অতএব, তোমরা এখন ও কি নিবৃত্ত হবে? [সূরা মায়িদা-৯০-৯১]

والله اعلم بالصواب
উত্তর লিখনে
লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা– জামিয়া কাসিমুল উলুম সালেহপুর, আমীনবাজার ঢাকা।

উস্তাজুল ইফতা-জামিয়া ফারুকিয়া দক্ষিণ বনশ্রী ঢাকা।

ইমেইল– ahlehaqmedia2014@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email
বিস্তারিত জানতে ছবির উপর টাচ করুন

এটাও পড়ে দেখতে পারেন!

একজন সাক্ষীর উপস্থিতিতে বিয়ের আকদ সম্পাদনকারী কাজীকে দ্বিতীয় সাক্ষী ধরলে বিয়ে হবে কি?

প্রশ্ন একজন সাক্ষীর উপস্থিতিতে কাজী যদি বিবাহ পড়ায়। তাহলে কাজীকে একজন সাক্ষী হিসেব করে দুইজন …